লন্ডন: ছ’বছর আগে অপরিণত মানসিকতায় করে বসা একটা ছোট ভুল, যার জন্য আজও লজ্জিত ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি৷ অনুতপ্ত বিরাটের স্পষ্ট স্বীকারোক্তি, তেমনটা না করলেই বোধহয় ভালো হত৷

আরও পড়ুন: সেহওয়াগের সমালোচনার জবাব দিলেন শাস্ত্রী

Advertisement

উইজডেন ক্রিকেট মন্থলিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কোহলি তুলে আনেন ২০১২ সালে সিডনিতে নিজের বিতর্কিত আচরণের প্রসঙ্গ৷ সেদিন দর্শকদের টিটকিরি সহ্য করতে না পেরে বাঁ-হাতের মধ্যমা দেখিয়ে বসেছিলেন বিরাট৷ যা নিয়ে কম সমালোচনা হয় নি৷ এমনকি ম্যাচ রেফারির চোখরাঙানিও হজম করতে হয়েছিল বিরাটকে৷

আরও পড়ুন: চূড়ান্ত ব্যাটিং বিপর্যয়ে হারতে হল ভারতকে

ঘটনার পর ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মদুগালের কাছে কীভাবে তাঁকে নির্বাসিত না করার কাতর আবেদন করেছিলেন, সেটাও জানাতে কুণ্ঠা বোধ করেননি কোহলি৷ বিরাট বলেন, ‘পরের দিন ম্যাচ রেফারি আমাকে তাঁর ঘরে ডেকে পাঠায়৷ আমার ভাবখানা ছিল এমন যে, ভুল কী আবার করলাম? উনি জিজ্ঞাসা করেন, গত কাল বাউন্ডারির ধারে কি ঘটেছিল? আমি জবাব দিই, তেমন কিছুই হয়নি৷ একটু মজা করছিলাম মাত্র৷ তখন একটা সংবাদপত্র আমার দিকে ছুঁড়ে দেন উনি, যার প্রথম পাতায় আমার ছবি ছিল৷ খুশি হওয়ার মতো মোটেও ছিল না ছবিটা৷ আমার মধ্যমা দেখানোর ছবিটাই ছাপা হয়েছিল সংবাদপত্রে৷ তখন আমি বলি, আমি অত্যন্ত দুঃখিত৷ দয়া করে আমাকে নির্বাসিত করবেন না৷ উনি ভালো মানুষ৷ বুঝতে পেরেছিলেন আমার বয়স কম৷ ওই বয়সে এমনটা করে বসা অস্বাভাবিক নয়৷’

আরও পড়ুন: বিরাটকে ফুটবল দলের জার্সি উপহার

কেরিয়ারের শুরুর দিকে কোহলিকে নিয়ে বেশ কিছু নেগেটিভ হেডলাইন হয়েছে, যে সম্পর্কে জানাতে গিয়ে বিরাট বলেন, ‘কম বয়সে এমন সব কাজ করেছি, যেগুলো মনে করলে এখন আমার হাসি পায়৷ তবে আমি গর্বিত যে, নিজেকে খুব বেশি বদলে ফেলিনি৷ আসলে আমি বাকিরা কি ভাববে, সে কথা ভেবে নিজেকে পাল্টানোর পক্ষপাতি ছিলাম না কখনই৷’

----
--