নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে আত্মপ্রকাশ করল ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্টস ব্যাংক (আইপিপিবি)৷ যার প্রাথমিক লক্ষ্য থাকছে দেশের পুরো ব্যাংকিং সিস্টেমে পরিবর্তন আনা৷ আইপিপিবি গ্রাহকদের জন্য নিয়ে আসছে একগুচ্ছ সুবিধা৷ যার মধ্যে থাকছে সেভিংস এবং কারেন্ট অ্যাকাউন্ট, মানি ট্রান্সফার, বিল এবং ইউটিলিটি পেমেন্ট সহ অন্যান্য সুবিধা৷

ব্যাংকটির উদ্ভোধন হয় ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ তে৷ তালকাতোরা স্টেডিয়ামে (নয়াদিল্লি) অনুষ্ঠিত উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আইপিপিবি দেশের সামাজিক এবং অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় একটি বড় পরিবর্তন আনতে চলেছে৷ যেটি দেশের প্রত্যেকটি কোণায় পৌঁছে যাবে৷ ব্যাংকিং এবং ডিজিটাল পেমেন্ট মাধ্যমে আমূল পরিবর্তন নিয়ে আসবে এই পেমেন্টস ব্যাংকটি৷’ তিনি আরও যোগ করেন, কৃষকরা আইপিপিবির দ্ধারা বিশেষভাবে উপকৃত হতে চলেছেন৷ ব্যাংকিং সেক্টরের নন-পারফর্মিং অ্যাসেটস (এনপিএ) এবং অদেয় ঋণ নিয়েও এদিন কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী৷ যদিও, এই ধরণের বিভ্রান্তির জন্য ইউপিএ সরকারকেই দায়ী করেছেন তিনি৷

Advertisement

শীর্ষ ব্যাংকের অধীনস্থ একটি পাবলিক সেক্টর সংস্থা হল এই আইপিপিবি৷ কিন্তু, কীভাবে কাজ করবে এই ইন্ডিয়া পোস্ট পেমেন্টস ব্যাংক? অনেকের মনেই উঠেছে প্রশ্নটি৷ গ্রামীন এলাকার মানুষের কাছে ব্যাংকিং এবং অর্থনৈতিক পরিষেবা পৌঁছে দেওয়াই প্রাথমিক লক্ষ্য সংস্থাটির৷ তবে, এর জন্য ২০১৮ সালের মধ্যে সমস্ত পোস্ট অফিস শাখাগুলিকে (প্রায় ১.৫৫ লাখ) আইপিপিবির সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে৷ সেই কাজটি ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে সংস্থাটি৷ আইপিপিবির মাধ্যমে গ্রামীন এবং মফস্বলের মানুষ বাড়ির দোরগোড়ায় পেতে চলেছেন ব্যাংকিং পরিষেবা৷

আইপিপিবির মাধ্যমে তিন ধরণের সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ পাবেন গ্রাহক৷ ১) রেগুলার সেভিংস অ্যাকাউন্ট ২) ডিজিটাল সেভিংস অ্যাকাউন্ট ৩) বেসিক সেভিংস অ্যাকাউন্ট৷ অ্যাকাউন্টগুলির উপরে গ্রাহক বার্ষিক ৪ শতাংশ হারে সুদ পাবেন৷ আইপিপিবি গ্রাহকদের থেকে এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত ডিপোসিট অ্যাকসেপ্ট করবে৷ আইপিপিবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার পদে নিয়োজিত রয়েছেন সুরেশ শেঠি৷

----
--