মদের দোকানের বিরুদ্ধে পুলিশ জনতা খণ্ড যুদ্ধ

স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: প্রশাসনের মদতে চলছে মদের দোকান৷ জনবহুল এলাকায় ওই মদের দোকান দেওয়া নিয়ে এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভ। লাইসেন্স প্রাপ্ত ওই দোকানের জন্য এলাকার শান্তি বিঘ্নিত হবে৷ এই অভিযোগ তুলে এলাকার মহিলারা মদের দোকানে গিয়ে ভাঙচুর চালালেন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়।

বালুরঘাটের পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়তে শুরু করেন বিক্ষোভকারীরা। সেই সঙ্গে পুলিশের গাড়িতেও ভাঙচুর চালায় তাঁরা৷ পাথরের আঘাতে জখম থানার আইসি সঞ্জয় ঘোষ সহ বেশ কয়েকজন। এরপরেই বাধ্য হয়ে পুলিশ লাঠি শুরু করলে জনতা পুলিশের সংঘর্ষ বেধে যায়। পরবর্তীতে বিশাল র‍্যাফ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করে৷

- Advertisement -

 

বালুরঘাট শহরের ১০ ওয়ার্ডের এক গোপালন কলোনিতে বেশ কিছুদিন থেকে একটি কোল্ড ড্রিংস এর দোকান চলছিল। মঙ্গলবার সকাল থেকে এলাকা মানুষ লক্ষ করেন যে সেখানে মদ বিক্রি হচ্ছে। তাঁরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন যে দোকানটিতে মদ বিক্রির লাইসেন্সও দিয়েছে প্রশাসন।

এর পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্থানীয়রা। অবিলম্বে লাইসেন্স বাতিল ও দোকান বন্ধের দাবিতে তাঁরা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। দোকানের মালিক তা বন্ধ করতে না চাইলে সেখানে ভাঙচুর শুরু করে দেন উত্তেজিত মানুষজন। ভাঙচুরের খবর পেয়ে আইসির নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়৷ পুলিশকেও লক্ষ্য করে ছোড়া হয় ইট পাথর। আর তাতেই গালে আঘাত লেগে জখম হন আইসি সঞ্জয় ঘোষ। শেষে বাধ্য হয়েই পুলিশ শুরু করে ব্যাপক লাঠি চার্জ। পরে ডেপুটি পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিশাল র‍্যাফ একে গোপালন কলোনি এলাকায় পৌঁছে শুরু করে ধরপাকড়।

Advertisement ---
---
-----