পুলিশের তৎপরতায় কোলে ফিরল অপহৃত সদ্যোজাত

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: পুলিশের তৎপরতায় সদ্যোজাত শিশুকে ফিরে পেলেন মা৷ শিশু অপহরণের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ধরা পরেছে পুলিশের জালে৷

বীজপুর থানার পুলিশের তৎপরতায় নিখোঁজ হওয়ার ১৭ দিনের মাথায় উদ্ধার হল এক সদ্যোজাত শিশুপুত্র৷ নিজের সদ্যোজাত সন্তান ফিরে পেয়ে খুশি ওই সদ্যোজাত শিশুর মা বর্ষা সরকার৷

আরও পড়ুন: বিনামূল্যের প্রশিক্ষণ শিবিরে বিশ্বমানের ক্রীড়াবিদ তৈরির প্রস্তুতি

- Advertisement -

গত ২৪শে ফেব্রুয়ারি বীজপুরের বাগমোড় হেলেঞ্চা এলাকায় বর্ষাদেবীর কোল থেকে তার সদ্যোজাত শিশুপুত্রকে ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়েছিল হালিশহর দত্তপাড়ার বাসিন্দা ঝন্টুলাল ভৌমিক ও তার দলবল৷ এরকমই অভিযোগ ওই শিশুর মায়ের৷

রবিবার ভোররাতে বীজপুর থানার পুলিশ ওই সদ্যোজাতকে ঝন্টুর হালিশহরের দত্তপাড়ার বাড়ি থেকে উদ্ধার করে এবং অভিযুক্ত ঝন্টুকে গ্রেফতার করে৷ রবিবার সকালেই ডেকে পাঠানো হয় উদ্ধার হওয়া সদ্যোজাত শিশুটির মা বর্ষাদেবীকে৷ তিনি নিজের সন্তান ফিরে পান পুলিশের তৎপরতায়৷ সন্তান ফিরে পেয়ে খুশি বর্ষাদেবী৷

আরও পড়ুন: রাজ্য জুড়ে আন্দোলনে নামছে ABVP

তাঁর স্বামী উত্তম সরকার ভিনরাজ্যে কর্মরত বলে জানা গিয়েছে৷ সেই কারণে বর্ষা শ্বশুর বাড়িতে না থেকে কাঁচরাপাড়ার বাগমোড় হেলেঞ্চা এলাকায় বাপের বাড়িতেই থাকেন৷ গত ২১ শে ফেব্রুয়ারি কল্যাণী জওহরলাল নেহেরু মেমোরিয়াল হাসপাতালে বর্ষাদেবী এক ফুটফুটে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন৷ ওই হাসপাতাল থেকে তিনি ২৪ ফেব্রুয়ারি ছুটি পান৷ নিজের বাপের বাড়িতে সন্তান-সহ যখন সবে মাত্র ফিরেছিলেন বর্ষাদেবী৷ অভিযোগ, তখনই ঝন্টু ও তার দলবল চড়াও হয়েছিল বর্ষাদেবীর উপর৷ সেই সময় তাঁকে খুনের হুমকি দিয়ে এবং তার বাবা-মাকে মারধর করে ঝন্টু বর্ষার তিনদিনের সদ্যজাতকে ছিনিয়ে নিয়েছিল বলে বর্ষা সরকারের অভিযোগ৷

আরও পড়ুন: লরির ধাক্কায় মৃত বাইক আরোহী

গত ২৫ শে ফেব্রুয়ারি সেই ঘটনারই অপহরণের অভিযোগ দায়ের হয়েছিল বীজপুর থানায়৷ তদন্তে নেমে বীজপুর থানার পুলিশ ওই সদ্যজাতকে উদ্ধার করে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল রবিবার৷ অভিযুক্ত ঝন্টুকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ তবে পুলিশ জানিয়েছে, ঝন্টুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে৷

ঠিক কী জন্য ওই সদ্যজাতকে নিয়ে পালিয়েছিল সে, তার প্রকৃত কারণ জানার চেষ্টা করছে পুলিশ৷ ঝন্টু অবশ্য পুলিশকে জানিয়েছে, সে বর্ষার থেকে ওই শিশুপুত্র ছিনতাই করেনি৷ সে বর্ষার এক আত্মীয়র মাধ্যমে বর্ষার বাচ্চা দত্তক নেবে বলে চুক্তিও করেছিল৷ এখন বর্ষা নিজের বাচ্চা ফিরে পেতে পুলিশের সাহায্য নিচ্ছে৷ প্রকৃত ঘটনা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ৷

আরও পড়ুন: ৩২ বছর পর হারানো মাকে ফিরে পেল ছেলেরা

বীজপুর থানার পুলিশ সূত্রের খবর, অভিযুক্ত ঝন্টু যথাযথ আইন মেনে দত্তক নেওয়ার কোনও চুক্তি করেনি৷ সে বর্ষার পুত্র সন্তানকে নিয়ে দীর্ঘদিন নদীয়া জেলায় নিয়ে গিয়ে লুকিয়ে রেখেছিল৷ পুলিশ শনিবার রাতে গোপনসূত্রে খবর পেয়ে মূল অভিযুক্ত ঝন্টুকে তার হালিশহরের বাড়ি গিয়ে ধরে ফেলে, সেখান থেকেই উদ্ধার হয় ওই শিশুপুত্রটি৷

এই শিশু ছিনতাইয়ের ঘটনায় আরও বেশ কয়েকজনের নাম জানতে পেরেছে পুলিশ৷ পুলিশ সূত্রের খবর, ঝন্টু ছাড়াও অন্য অভিযুক্তদেরও সন্ধান চলছে, তাদের ও গ্রেফতার করা হবে৷

আরও পড়ুন: ড্রোন উড়িয়ে জঙ্গলমহলে বাঘের খোঁজে তল্লাশি

Advertisement ---
---
-----