ঢাকা: বাংলাদেশে নির্বাচনের বাজনা প্রায় বেজে গেল৷ তিন মাস বাদেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের সম্ভাবনার কথা জানিয়ে দিলেন ক্ষমতাসীন আওয়ামি লিগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচনকালীন সরকার দায়িত্ব গ্রহণ করবে। নির্বাচনকালীন সরকার বলতে নতুন কোনও সরকার গঠিত হবে না। বর্তমান সরকারই নির্বাচনকালীন সরকারের দায়িত্ব নেবে। তবে মন্ত্রীপরিষদের আকার ছোট হবে। এ বিষয়টি পুরোপুরি প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ারে। তিনিই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

বুধবার সচিবালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে ওবায়দুল কাদেরর মন্তব্যের পরই বাংলাদেশের রাজনীতিতে নির্বাচনী ঝড় উঠতে চলল বলেই মনে করা হচ্ছে৷ তবে অন্যতম বিরোধী দল বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নেওয়া ঘিরে জটিলতা এখনো কাটেনি৷ দলীয় নেত্রী তথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় জেলে আছেন৷ তাঁকে বাদ দিয়ে নির্বাচন অসম্ভব বলেই দাবি করেছেন বিএনপি শীর্ষ নেতৃত্ব৷

বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের জন্য মনোনয়নপত্র দিয়েছে৷ তাহলে জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণে সমস্যা কোথায়? সংবিধান অনুযায়ী, নির্বাচন কমিশনের আচরণবিধি অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপি এলেই তো আর নির্বাচন একতরফা হয় না। বহু দল অংশগ্রহণ করবে। এবারে রাজনৈতিক দলগুলির অংশগ্রহণ আরও বেশি হবে৷

----
--