স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: উদয়ন গুহর পর কি এবার পরেশ অধিকারী? বাম শরিক ফরওয়ার্ড ব্লকের এই নেতা কি যোগ দিতে চলেছেন শাসকদল তৃণমূলে৷ সেই জল্পনা ঘিরেই এখন সরগরম কোচবিহার জেলার রাজনীতি৷ সম্প্রতি জেলার ফরওয়ার্ড ব্লকের সম্পাদক তথা রাজ্যের প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী পরেশ অধিকারীকে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন বোর্ড এর চেয়ারম্যান করা হয়েছে৷ প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তেই বেড়েছে জল্পনা৷ দল বদলের প্রশ্নে পরেশ অধিকারীর দাবি, ‘‘এই বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেননি তিনি৷’’

মেখলিগঞ্জের বিধায়ক অর্ঘ্য রায় প্রধানকে সরিয়ে সম্প্রতি ‘চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন বোর্ডে’র চেয়ারম্যান করা হয়েছে পরেশ অধিকারীকে৷ কোচবিহারের একদা দাপুটে নেতাকে হঠাৎ এই পদ দেওয়ার কারণ কী? আবারও বামেদের রক্তক্ষরণের ইঙ্গিত? জল্পনা বেড়েছে খোদ পরেশবাবুর মন্তব্যেও৷ দল বদলের প্রশ্ন করতেই তাঁর জবাব, ‘‘তৃণমূলনেত্রী তাঁকে শাসকদলে যোগদানের জন্য বলেছেন৷ গোটা বিষয়টি বিবেচনাধীন৷’’

Advertisement

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা অবশ্য এর পিছনে তৃণমূল নেত্রীর কৌশলী চালের আভাস পাচ্ছেন৷ কোচবিহার ও জলপাইগুড়িতে শক্তি বাড়িয়েছে বিজেপি৷ কমেছে বামেদের ভোট৷ এই প্রেক্ষিতে ১৯শের ভোটে জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার লোকসভায় কঠিন লড়াই৷ জলপাইগুড়ি লোকসভার অন্তর্গত মেখলিগঞ্জ বিধানসভা৷ যা পরেশবাবুর খাসতালুক বলে বিবেচিত৷ তাই ভোট ভাগ রুখতে ও তৃণমূলের সাংগঠনিক শক্তি বাড়াতে তৎপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পরেশ অধিকারীকে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান করে কাছে টানার ইঙ্গিত দিয়ে রাখল রাজ্যের শাসক দল৷

পরেশ অধিকারীর দল বদলের জল্পনা নিয়ে অবশ্য মুখ খুলতে নারাজ ফরওয়ার্ড ব্লকের রাজ্য নেতৃত্ব৷ তবে আপাতত এই জল্পনা ঘিরেই আবর্তীত হচ্ছে কোচবিহার জেলার রাজনীতি৷

----
--