সরানস্ক: বিশ্বকাপ শুরুর আগেই থেকেই স্বপ্নের ফর্মে ছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো৷ প্রথম ম্যাচেই স্পেনের বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করে রাশিয়া বিশ্বকাপে পর্তুগালকে স্বপ্নের শুরু দেন সিআর সেভেন৷ স্পেনের বিরুদ্ধে ড্র হলেও মরক্কোকে হারিয়ে নক-আউটের রাস্তা খোলা রাখে পর্তুগাল৷ সোমবার গ্রুপের শেষ ম্যাচে ইরানের সঙ্গে ড্র (১-১) করে বিশ্বকাপের শেষ ষোলোয় জায়গা করে নেয় রোনাল্ডো অ্যান্ড কোং৷ তবে পেনাল্টি মিস করে মেসিকে ছুঁয়ে ফেলেন সিআর সেভেন৷

প্রথম ও শেষ ম্যাচে ড্র কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে মরক্কোর বিরুদ্ধে জয়ের সুবাদে পাঁচ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ ‘বি’ থেকে দ্বিতীয় দল হিসেবে নক-আউটে পৌঁছল পর্তুগাল৷ শেষ ষোলোয় রোনাল্ডোদের সামনে উরুগুয়ে৷ যারা গ্রুপ-এ থেকে অপরাজিত থেকে সোমবার নক-আউটে পৌঁছয়৷

Advertisement

গ্রুপ বি-এর শেষ দু’টি ম্যাচে রোমাঞ্চেকর ফুটবলের সাক্ষী থাকল ফুটবলবিশ্ব৷ টানটান উত্তেজনায় শেষ হয় ইরান-পর্তুগাল এবং স্পেন-মরক্কো ম্যাচ৷ দু’টি ম্যাচই শেষ মুহূর্তে ড্র হয়৷ কিন্তু পাঁচ পয়েন্ট করে নিয়ে প্রি-কোয়ার্টারে পৌঁছে যায় পর্তুগাল ও স্পেন৷

মরডোভিয়া এরিনায় সোমবার ম্যাচের প্রথমার্ধের শেষলগ্নে অর্খাৎ ৪৫ মিনিটে পর্তুগালকে এগিয়ে নেন রিকার্ডো কারেসমা৷ সে সোয়ারেসের সঙ্গে ‘ওয়ান-টু-ওয়ান’ বল নিয়ে গিয়ে একটু এগিয়ে গিয়ে ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে ডান পায়ের বাঁকানো শটে ইরানের জালে বল জড়ান এই পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড৷

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্যবধান ২-০ করার সুযোগ ছিল পর্তুগালের সামনে৷ ৫৩ মিনিটে রোনাল্ডোর পেনাল্টি শট বাঁ-দিকে ঝাঁপিয়ে বাঁচান ইরান গোলরক্ষক আলি বেইরানভান্দ৷ তাঁকে ফাউল করা হলে ভিডিও ফুটেজ দেখে স্পট-কিকের নির্দেশ দিয়েছিলেন রেফারি৷

রোনাল্ডো পেনাল্টি মিস করলেও ভুল করেননি ইরানের তারকা খেলোয়াড় করিম আনসারিফার্দ৷ ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে অর্থাৎ ৯৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোলে করে ম্যাচ ১-১ করেন ইরানের আনসারিফার্দ৷ ডি-বক্সে সোয়ারেসের হ্যান্ডবলের ভিডিও ফুটেজ দেখে স্পট কিকের নির্দেশ দিয়েছিলেন রেফারি।

এর ঠিক পরেই দলকে জিতিতে ইতিহাস সৃষ্টির দারুণ সুযোগ এসেছিল ইরানের তারেমির সামনে৷ খুব কাছে থেকে তাঁর শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়৷ এমনটাা হলে প্রথম পর্বেই বিদায় নিত ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল৷ আগামী শনিবার শেষ ষোলোতে গ্রুপ-এ চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ের বিপক্ষে খেলবে পর্তুগাল৷

----
--