তবে কি মে মাসেই ভোট! দিলীপের মন্তব্যে জল্পনা

স্টাফ রিপোর্টার: নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যেই ভোটের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে৷ বাজারে ভোট নিয়ে জল্পনাও ছড়িয়েছে বিভিন্নরকম৷ কেউ বলছে লোকসভা ভোট এগিয়ে আসবে নতুন বছরের শুরুতেই৷ কারও কথায়, মার্চেই দামামা বাজবে লোকসভা নির্বাচনের৷ সেই জল্পনায় নবতর সংযোজন ঘটালেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ৷ রবিবার মালদহে এক দলীয় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি ইঙ্গিত দিয়েছেন, ২০১৯ সালের মে মাসে হতে পারে লোকসভার ভোট৷

ঠিক কী বলেছেন দিলীপ ঘোষ! এদিন মালদহের গাজোলে বিজেপির যোগদান কর্মসূচি ছিল৷ সেখানে আগামী লোকসভা ভোটে রাজ্য পুলিশের ভূমিকা কী হবে সে প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে দিলীপ বলেন, মে মাসে তো খুব গরম থাকে৷ দিদির পুলিশদের সেই রোদে আর কষ্ট করতে হবে না৷ কারণ লোকসভা ভোটের জন্য রাজ্যে বাহিনী পাঠাবে কেন্দ্র৷ তাই পুলিশকে গাছতলায় বসে বিশ্রাম করার পরামর্শ দেন তিনি৷

আরও পড়ুন: লোকসভা ভোটে ২০টির কম আসন পাবে তৃণমূল, ভবিষ্যৎবাণী মুকুলের

এরপরই প্রশ্ন উঠেছে কেন দিলীপ ঘোষ মে মাসের কথা বললেন৷ তবে কি দিল্লি থেকে কোনওরকম আগাম ইঙ্গিত রাজ্য বিজেপির এই নেতার কাছে এসেছে! ইতিমধ্যেই লোকসভা ভোটের জন্য কাজ শুরু করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন৷ ভোটার তালিকার কাজের পাশাপাশি বিভিন্ন রাজ্যের জেলাগুলিতে ভোট নিয়ে প্রাথমিক প্রস্তুতির নির্দেশিকাও পৌঁছে গিয়েছে৷

দেখে নিন কী বলেছেন দিলীপ ঘোষ…

বেশ কয়েকটি বিষয়ের উপর জোর দিতে বলা হয়েছে কমিশনের তরফে৷ সেই তালিকায় রয়েছে বুথের পরিকাঠামো, মৃত ও ‘রিপিটেড’ ভোটারদের তালিকা প্রস্তুত, ১৩০০-র উপর ভোটার রয়েছে এমন বুথের চিহ্নিতকরণ-সহ বেশ কয়েকটি বিষয়৷ এ রাজ্যেই বেশ কয়েকটি জেলায় বাড়ি বাড়ি ঘুরে সার্ভের কাজও শুরু করে দিয়েছে৷ বুথ পর্যায়ে যে অফিসাররা রয়েছেন তাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করছে৷

অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় ভোটার বেঁচে নেই অথচ তালিকায় নাম রয়ে গিয়েছে৷ কিংবা একজন ভোটারের দু’জায়গায় নাম রয়েছে৷ তাঁদের দ্রুত চিহ্নিত করতে বলা হয়েছে৷ সূত্রের খবর, এ ক্ষেত্রে একই দিনে হিয়ারিং রাখা হবে, যাতে একজন দু’জায়গায় উপস্থিত না থাকতে পারেন৷

আরও পড়ুন: পুজোর মুখে বাড়ছে চুরি, ছিনতাই

----
-----