তবে কি পরমাণু যুদ্ধ? আশঙ্কায় পাকিস্তান

ইসলামাবাদ: ভারত বিভিন্ন ধরনেত অস্ত্র সংগ্রহ করছে, যা পাকিস্তানের জন্য আতঙ্কের। এমনটাই বললেন, পাকিস্তানের এনএসএ নাসের খান জানুজা। এমনকি চিন-পাকিস্তান ইকনমিক করিডরে বাধা দিতে আমেরিকা ভারতের সঙ্গে মিলে ষড়যন্ত্র করছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি। এমনকি ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে পরমাণু যুদ্ধের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে একটি সেমিনারে বক্তব্য রাখছিলেন তিনি। সেখানেই তিনি বলেন, ভারত বিভিন্ন ধরনের মারণাস্ত্র জমা করছে। তাঁর দাবি, আফগানিস্তানে যত তালিবান মাথাচাড়া দিচ্ছে ততই আমেরিকা নিজেদের ব্যর্থতার দায় পাকিস্তানের ঘাড়ে চাপিয়ে দিচ্ছে। চিনের সঙ্গে সখ্যতা বাড়ার কারণেই আমেরিকা ভারতের সঙ্গে মিলে ষড়যন্ত্র করছে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

এদিকে, চিন-পাকিস্তান ইনকমিক করিডর বন্ধ করার জন্য টাকা দিচ্ছে ভারত তথা ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’। এমনটাই অভিযোগ পাকিস্তানের। সম্প্রতি এক সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়র এমন অভিযোগ করেছেন পাক সেনার জয়েন্ট চিফ অফ স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান জেনারেল জুবের মহম্মদ হায়াত। বন্ধু দেশ চিনের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে তৈরি করা ওই প্রজেক্টে ভারতের বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, চিন-পাকিস্তান ইকনমিক করিডরের যে লাভের অঙ্কের হিসেব পাওয়া গিয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে আখেরে পাকিস্তানের ঘরে বিশেষ কিছুই আসছে না। লাভের সিংহভাগই নিয়ে যাচ্ছে চিন। আর বাদবাকি দেওয়া হচ্ছে পাকিস্তানকে। পাকিস্তানের বন্দর ও জাহাজ সংক্রান্ত মন্ত্রী মীর হাসিল বিজেনজো জানিয়েছেন, গোয়াদার বন্দর থেকে যে লাভ হবে তার ৯০ শতাংশ নেবে চিন। গোয়াদার পোর্ট অথরিটিকে দেওয়া হবে ৯ শতাংশ। আগামী ৪০ বছর ধরে এমনটাই চলবে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ৪০ বছর ধরে চলবে এই নিয়ম।

Advertisement ---
---
-----