শুভঙ্কর চক্রবর্তী, কলকাতা: গত মাসে রব উঠেছিল ইরফানের ‘হিন্দি মিডিয়াম’ তাঁর সিনেমা ‘রামধণু’ থেকে টোকা হয়েছে ৷সরব হয়েছিলেন গার্গী রায়চৌধুরী এমনকি বুম্বাদাও৷টুইট চলেছিল টপাটপ৷তবে এই ‘ঝাড়াঝাড়ি’র প্রসঙ্গে শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, টুইটার পোস্টে লিখেছিলেন ‘‘তোমরা বলবে… বন্ধুরা বলবে… বাংলার দর্শক বলবে..।’
সুচিত্রাদেবীর গল্প থেকে টোকাটুকির পর কিন্তু এবার কিন্তু শিবুদা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় বাংলার দর্শকেরা বলছে৷
কারণ সেই একই অভিযোগে অভিযুক্ত শিবু-নন্দিতা৷‘পোস্ত’র আমদানি ভাল, ৪ দিনেই ১ কোটি! এর আগের শিবু-নন্দিতার ‘প্রাক্তন’গুলোরও ভাল ফল ছিল টলি-মার্কেটে৷ সবই ঠিকঠাক চলছিল৷সমস্যা শুরু হল সুচিত্রা ভট্টাচার্য্যের জীবনাবসানের পর৷ কারণ তাঁর মৃত্যুর পর সুচিত্রাদেবীর নামও মুছে গেল সিনেমার ক্রেডিট লাইন থেকে৷ ‘ইচ্ছে’, ‘অলীক সুখ’ বা ‘রামধনু’ ছবিতে উল্লেখ ছিল সুচিত্রা ভট্টাচার্যের লেখা অবলম্বনে। তাই ওপেনিং ক্রেডিটেও লেখিকার নাম মিস হয়নি৷তাঁর প্রয়াণের পর হিসেব গেল বদলে রেকর্ড ব্রেকিং হিটে ‘প্রাক্তন’ সিনেমা থেকেই সুচিত্রাদেবীকে কম ভালবাসতে শুরু করলেন ডিরেক্টর ডুয়ো৷কাহিনী-চিত্রনাট্যতে নাম গেল নন্দিতা ম্যামের৷ সুচিত্রাদেবীর নাম উধাও! কিন্তু বইপড়ুয়ারা একবার ‘প্রাক্তন’ দেখলেই বলে দেবেন সুচিত্রাদেবীর ‘উজান’ গল্পের সঙ্গে কী মিষ্টি মিল রয়েছে৷‘প্রাক্তন’ স্টোরির রেশ যেতে না যেতেই এই মাসেই মুক্তি পেল ‘পোস্ত’, পরিবেশনও হয়েছে রসিয়ে৷পোস্ত নিয়ে বিদেশেও পাড়ি দিয়ে দেশে ফিরলেন পরিচালকেরা৷কিন্তু ওই যে আবার ভুল, আসলে ভুল বলা ঠিক হবে না, কারণ একবার ভুল সেটি ভুলই তবে বারবার ভুলকে আর ভুল বলে না৷সেটিকে বলে বদভ্যাস৷‘পোস্ত’র চিত্রনাট্যটিও সুচিত্রা ভট্টাচার্যের লেখা ‘মোহনবিল’ থেকে নেওয়া৷আর এই ছবিতেও লেখিকাকে আবার স্বীকৃতি দেওয়া হল ন৷এখানেও চিত্রনাট্যকার শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায় আর কাহিনীকার হিসেবে নন্দিতা রায়ের নাম গিয়েছে। একের পর এক এ ধরনের বদভ্যাসকে ভাল চোখে দেখছেন না সুচিত্রা অনুরাগী পাঠককুল৷

তাঁদের অনেকেরই মত ‘‘আরে মশাই৷অনুপ্রানিতও যদি হন, সেটাও লিখে দিন, স্বীকৃতিটা তো দেবেন? মাঝে মাঝে বুঝে উঠতে পারি না টোকা না চুরি?’’

প্রসঙ্গত আরেকটি কথা, ঋতুপর্ণ ঘোষের ছবি ‘বাড়িওয়ালি’তে অভিনয়ের জন্য কিরণ খের জাতীয় পুরষ্কার পান৷ সেই সময়েও বিতর্ক ওঠে, কিরণের হয়ে পুরো ডাবিংটাই করেন রীতা কিন্তু এতটুকুও স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি তাঁকে৷শিবু-নন্দিতার ‘প্রাক্তন’ যেন সে ঘটনা মনে করিয়ে দেয়, এবং তারপর ‘পোস্ত’তে তাই আবার রিপিট ৷দু’টো ছবিতেই শিল্পী স্বীকৃতি পেল না৷
এই সব নিয়েই সবিস্তারে জানতে ফোনও করা হয় নন্দিতা রায়কে তিনি সংক্ষেপেই জানিয়ে দেন ‘আমি এই বিষয়ে কথা বলতে চান না’৷

শুধু একবার মনে করিয়ে দিই, সুচিত্রাদেবীর জীবনাবসান হয় ১২ মে ২০১৫, ‘পোস্ত’ রিলিজ হল ১২ মে ২০১৭৷ জীবিত অবস্থায় সুচিত্রা ভট্টাচার্যর গল্প অবলম্বনে একের পর এক ছবি করেছেন নন্দিতা-শিবু জুটি, তবে মৃত্যুবার্ষিকীতেই মিস হয়ে গেল ‘পোস্ত’তে সুচিত্রাদেবীর নাম৷এই যা৷

----
--