বেলুড় মঠ থেকে স্ত্রীর জন্য প্রসাদী শাড়ি নিয়ে গেলেন রাষ্ট্রপতি

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: পশ্চিমবঙ্গ সফরের দ্বিতীয়দিনে বেলুড় মঠ পরিদর্শন করলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ৷রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর এই প্রথম তিনি বেলুড় মঠে এলেন৷বুধবার সকাল ১১টা ৫ মিনিট নাগাদ তিনি সড়কপথে বেলুড় মঠে যান৷ তার পর প্রায় ৩৫ মিনিট তিনি সেখানে ছিলেন৷ তাঁর সঙ্গে ছিলেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠি৷

রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গে প্রথমবার সফরে আসেন রামনাথ কোবিন্দ৷ ওই দিন তাঁকে নাগরিক সংবর্ধনা দেওয়া হয় রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে৷ নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের আঁকা একটি ছবি তাঁকে উপহার দেন৷

আরও পড়ুন: মমতার ছবি থাকবে রাষ্ট্রপতি ভবনে: কোবিন্দ

- Advertisement -

এর পর বুধবার তিনি জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি, নেতাজি ভবন পরিদর্শন করেন৷ তার পর যান বেলুড় মঠে৷ সেখানে গিয়েই তিনি প্রথমেই যান স্বামীজীর শয়নকক্ষে৷ ওই কক্ষেই জীবনের শেষ কয়েকবছরে কাটিয়েছিলেন স্বামীজী৷ ওই ঘরেই রয়েছে শিকাগো ধর্ম মহাসম্মেলনের স্বামীজীর ব্যবহৃত পাগড়ি৷ ওই ঘর দর্শনের পর রাষ্ট্রপতি চলে যান স্বামীজীর মন্দিরে৷ সেখানে প্রণাম ও অর্ঘ্য প্রদান করেন তিনি৷ এরপর যান মায়ের মন্দিরে৷ সেখানে শ্রীমা সারদাকে প্রণাম ও অর্ঘ্য নিবেদন করেন৷ তারপর রাষ্ট্রপতি মঠের সংঘাধ্যক্ষ স্বামী স্মরণানন্দজির কাছে তাঁর আশীর্বাদের জন্য যান৷

সেখানে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলেন স্মরণানন্দজি৷ তিনি রাষ্ট্রপতি ও রাজ্যপালের হাতে ঠাকুরের প্রসাদী শাল ও রাষ্ট্রপতির স্ত্রীর জন্য মায়ের প্রসাদী শাড়ী উপহার দেন৷ আশীর্বাদ করেন৷ মঠের তরফ থেকে সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ মহারাজ জানান, বেলুড় মঠে রাষ্ট্রপতি এসে আপ্লুত৷ উনি আবার আসার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন৷ জানা গিয়েছে, নরেন্দ্রপুরের প্ল্যাটিনাম জুবিলি অনুষ্ঠানেও আসার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি৷এর আগেও একবার বেলুড় মঠে এসেছেন রামনাথ কোবিন্দ৷ তখন তিনি ছিলেন বিহারের রাজ্যপাল৷

এদিন সকাল ১১টা ৫০ মিনিট নাগাদ বেলুর মঠ থেকে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ রওনা দেন বিমানবন্দরের উদ্দেশে৷ সেখান থেকে বায়ুসেনার বিমানে তিনি চলে যান নয়াদিল্লি৷

Advertisement ---
---
-----