নয়াদিল্লি: এক দশক পর সিয়াচেনে পা রাখতে চলেছেন কোনও রাষ্ট্রপতি৷ বৃহস্পতিবার পৃথিবীর উচ্চতম রণক্ষেত্রে যাবেন রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ৷ দেখা করবেন প্রায় ১২ হাজার ফুট উঁচু এই অঞ্চলে দিনের পর দিন অতন্দ্র প্রহরা দেওয়া জওয়ানদের সঙ্গে৷

আরও পড়ুন: ‘আমাকে খতম করতে পারত, কিন্তু বাঁচিয়েছে সেনা’, স্বীকারোক্তি জঙ্গির

Advertisement

বুধবার রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে বিবৃতি জারি করে এই খবর জানানো হয়৷ তাতে বলা হয়েছে, ‘‘বৃহস্পতিবার জম্মু-কাশ্মীরের সিয়াচেনে যাবেন রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ৷ সেখানে জওয়ানদের সঙ্গে বার্তালাপ করবেন৷’’ প্রসঙ্গত প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এপিজে আবদুল কালামের পর এই প্রথম কোনও রাষ্ট্রপতি সিয়াচেনে সেনা শিবিরে যাবেন৷ এর আগে ২০০৪ সালে এপিজে আবদুল কালাম সিয়াচেন গিয়েছিলেন৷ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপতি কুমার পোষ্টেও যাবেন৷

আরও পড়ুন: ফোর্বস তালিকায় প্রথম দশে মোদী

কাশ্মীরের অন্যান্য সীমান্ত এলাকার থেকে সিয়াচেন অপেক্ষাকৃত শান্ত৷ সীমান্তের ওপারে পাক সেনার অবস্থান অনেকটাই নীচের দিকে। ফলে অবস্থানগত সুবিধা পায় ভারত। চাইলেও সহজে এই পথে বিশেষ সুবিধা করতে পারে না পাক সেনা৷ কিন্তু এখানকার প্রতিকূল আবহাওয়াই যেন কঠিন প্রতিপক্ষ৷ তুষার ও ভুমি ধস নিত্য নৈমিত্তিক ব্যাপার৷ হিমবাহটি দখলে রাখতে গিয়ে সেনা সদস্যদের মৃত্যু হয় প্রাকৃতিক কারণে৷ ২০১৫ সালে ভারত সরকার পরিসংখ্যান তুলে ধরে জানিয়েছিল প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ৮৬৩ ভারতীয় জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন৷

----
--