আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে নেপালে প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

কাঠমান্ডু: দু’দিনের সফরে নেপাল পৌঁছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ বৃহস্পতিবার সকাল সকাল উড়ে যান কাঠমান্ডু৷ বিমানবন্দরে পৌঁছতেই তাঁকে স্বাগত জানান সেদেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইশ্বর পোখরেল৷ সেখান থেকে দু’জনে রওনা দেন আন্তর্জাতিক সম্মেলেন যোগ দিতে৷ এই সফরে নেপাল-ভারত মৈত্রী ধর্মশালা ও পশুপতি মন্দির কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করবেন মোদী ও নেপালের প্রধানমন্ত্রী৷

আরও পড়ুন: এনআইএ’র হাতে গ্রেফতার হিজবুল প্রধানের ছেলে

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে বে অফ বেঙ্গল ইনিসিয়েটিভ ফর মাল্টি সেক্টরল টেকনিক্যাল এন্ড ইকোনমিক কোঅপারেশন সংক্ষেপে বিআইএমএসটিইসি’র৷ দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সাতটি দেশকে নিয়ে গঠিত বিআইএমএসটিইসি’র চতুর্থ সম্মেলন বসতে চলেছে কাঠমান্ডুতে৷ সেখানে যোগ দিতে গেছেন মোদী৷ নেপাল যাওয়ার আগে সম্মেলনে যোগ দেওয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রী জানান, প্রতিবেশি দেশগুলিকে ভারত সবসময় অগ্রাধিকার দেয়৷ তাদের সঙ্গে সম্পর্ককে আর মজবুত ও অন্য মাত্রায় নিয়ে যেতে আগ্রহী নয়াদিল্লি৷ এই সম্মেলনে ভারতের যোগদান সেটাই প্রমাণ করে৷

- Advertisement DFP -

আরও পড়ুন: কংগ্রেসের তৈরি তালিকা অনুযায়ী গ্রেফতারি, সাফাই মোদী সরকারের

সম্মেলনের ফাঁকে ভুটান, মায়ানমার. শ্রীলঙ্কা ও থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রনেতাদের সঙ্গে আলাদা করে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ দেখা হতে পারে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও৷ নেপাল যাওয়ার আগে বিবৃতি দিয়ে জানান মোদী৷ বিশেষ করে নেপালের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নয়নে জোর দিতে চায় মোদী সরকার৷ প্রধানমন্ত্রী জানান, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলির সঙ্গে সাক্ষাত করার জন্য মুখিয়ে আছি৷ চলতি বছর মে মাসে নেপাল সফরে এসে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি করি৷ এতদিনে তার বাস্তব প্রতিফলন কতটা হয়েছে তা খতিয়ে দেখবে দুই দেশ৷ এ ছাড়া বঙ্গোপসাগরীয় অঞ্চলে শাস্তি স্থাপনে অন্যান্য দেশের সঙ্গে আলোচনা করবেন৷

Advertisement
----
-----