শ্লীলতাহানির অভিযোগে ব্যাঁটরায় গ্রেফতার গৃহশিক্ষক

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: শ্লীলতাহানির অভিযোগে এক গৃহশিক্ষককে গ্রেফতার করল পুলিশ। ঘটনাটি হাওড়া জেলার ব্যাঁটরা এলাকার।

অভিযুক্ত ওই গৃহশিক্ষকের নাম মৃণাল চক্রবর্তী। বাংলা পড়ায় সে। বৃহস্পতিবার দুপুরে তার বাড়িতে পড়তে এসেছিল এক ছাত্রী। সেই ছাত্রীই শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলেছে।

আরও পড়ুন- আদিবাসী দিবসে বিশেষ উদ্যোগ বাঁকুড়া প্রশাসনের

- Advertisement -

অভিযোগ অনুসারে, অন্যদিনের মতো এদিনও ব্যাঁটরা এলাকার ওই ছাত্রী পড়তে গিয়েছিল মৃণালের বাড়িতে। অন্যান্য দিনের মতোই গায়ে পড়া বা ঘনিষ্ঠ হওয়ার প্রচেষ্টা এদনিও পুরোমাত্রায় বজায় রেখেছিল অভিযুক্ত বাংলার শিক্ষক মৃণাল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বৃদ্ধি পায় অশ্লীলতার মাত্রা। আর এর জেরেই ঘটল বিপত্তি।

আরও পড়ুন- মুসলিম বাইক আরোহীদের মাথা থেকে ‘টুপি’ সরাল পড়ুয়ারা

এদিন গৃহশিক্ষক মৃণাল চক্রবর্তী ছাত্রীর সঙ্গে অশালীন আচরোণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই ছাত্রী। শুধু তাই নয়, শ্লীলতাহানির অভিযোগও করা হয়েছে ওই গৃহশিক্ষকের বিরুদ্ধে। এদিন ওই কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীর লিখিত অভিযোগের উপরে ভিত্তি করেই গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষক মৃণালকে।

আরও পড়ুন- ‘ঝুমা বৌদি’ এবার আরও HOt! সামলাতে পারবেন তো ঠাকুরপোরা

এদিন বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই অভিযুক্ত মৃণালের উপরে চড়াও হয় স্থানীয় মানুষজন। প্রবল মারধোরের পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, এর আগেও ওই গৃহশিক্ষকের বিরুদ্ধে একাধিকবার অভব্য আচরণ এবং শ্রীলতাহানির অভিযোগ উঠেছিল। যদিও এবার ঘটনার পর এলাকার বাসিন্দারা তাকে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Advertisement
-----