কংগ্রেসের আশা জাগিয়ে আজ রাজ সমারোহে প্রিয়াঙ্কা পা দেবেন যোগীর রাজ্যে

লখনউ: উত্তরপ্রদেশে এক নতুন রাজনীতি শুরু করছেন রাহুল-প্রিয়াঙ্কা। সেই রাজনীতিতে নাকি সবাই শরিক। এমনই বার্তা দিয়ে লখনউয়ের পথে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী।

তাঁকে ঘিরে অনেকের অনেক প্রত্যাশা রয়েছে দলের নেতা-কর্মীদের। তিনি দলে নতুন আলো দেখাবেন, এমন আশাতেই বুক বেঁধেছে কংগ্রেস। তাই লকনউ জুড়ে প্রিয়াঙ্কাকে অভ্যর্থনা জানাতে ছেয়ে গিয়েছে পোস্টারে। সঙ্গে আর এক তরুণ নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া।

সোমবার দুপুরে লখনউ পৌঁছলেন প্রিয়াঙ্কা। তার আগে রবিবার কংগ্রেসের শক্তি অ্যাপের মাধ্যমে রবিবার সমর্থকদের প্রিয়াঙ্কা বলেন, আমি চাই আমাদের সবার অংশগ্রহণের মাধ্যমে রাজনীতিতে একটা পরিবর্তন আসুক। রাজনীতির পরিসর এমন হোক যেখানে সকলে নিজেকে তার অংশ ভাবতে পারে।

- Advertisement -

এই তিন নেতা লখনউ বিমানবন্দরে এসে পৌঁছেছেন। সেখান থেকে তাঁদের স্বাগত জানিয়ে শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে লখনউ শহরের কংগ্রেসের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। প্রায় ৩০ কিলোমিটার জুড়ে সেই রোড শো হবে একেবারে রাজ সমারোহে।

এই কার্যালয় থেকেই সাংবাদিক সম্মেলন করবেন তিনি। জানা গিয়েছে আগামী তিন চার দিন উত্তরপ্রদেশেই থাকছেন প্রিয়াঙ্কা। বিভিন্ন এলাকার নেতাদের সঙ্গে কথা বলে সংগঠনের হাল হকিকত বুঝে নেবেন তিনি। দেশের সবচেয়ে বড় রাজ্য উত্তরপ্রদেশে ৮০ টি লোকসভা কেন্দ্র রয়েছে। তার মধ্যে প্রায় ৪০ টি নিয়ে বৈঠক করবেন বলে খবর। এরপর দিল্লি ফিরে যাওয়ার কথা তাঁর। তবে এই সফরে পূর্ব উত্তরপ্রদেশের কয়েকটি জায়গাতেও যেতে পারেন।

দলীয় পদের জন্য তাঁর নাম ঘোষণা হয়ে গিয়েছে সপ্তাহ দুয়েক আগে। তিনি দলের হয়ে পূর্ব উত্তরপ্রদেশের সংগঠনের কাজ দেখভাল করবেন। তাঁর সঙ্গেই নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন মধ্যপ্রদেশের জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তিনি পশ্চিম উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসকে শক্ত ভিতের উপর দাঁড় করানোর কাজ করবেন। ইতিমধ্যে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য।

গত লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ফল ভাল হয়নি মোটেই। বিধানসভা নির্বাচনে জোট করেও সুফল পায়নি কংগ্রেস। এবার আবার বিজেপি বিরোধী জোটেও ঠাঁই হয়নি কংগ্রেসের। হাত মিলিয়েছেন অখিলেশ-মায়াবতী। তাই এবার সেই উত্তরপ্রদেশে ভাল ফল করতে প্রিয়াঙ্কার উপরেই আস্থা রাখছে কংগ্রেস। পূর্ব উত্তরপ্রদেশ একদা কংগ্রেসের গড় ছিল। জওহরলাল নেহরু থেকে শুরু করে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী জিততেন এই এলাকা থেকে। তবে গত কয়েক দশকে সমীকরণ পাল্টেছে অনেকটাই