চাপ বাড়িয়ে নির্বাচনের আগে যোগীর রাজ্যে আসছেন প্রিয়াঙ্কা

লখনউঃ  সামনেই লোকসভা নির্বাচন! আর নির্বাচনের আগে কর্মীদের চাঙ্গা করতে দাদা রাহুলের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে প্রিয়াঙ্কা। এবার শুধু ময়দানে নেমে পড়ার পালা। আর তা করতে আগামীকাল সোমবার থেকেই পাকাপাকিভাবে রাজনীতির ময়দানে নামছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। চার দিনের লখনউ সফরে ঠাসা কর্মসূচি অপেক্ষা করছে তাঁর জন্য।

দলের সাধারণ সম্পাদকের ভার পাওয়ার পর এই প্রথম উত্তরপ্রদেশ সফরে আসছেন প্রিয়াঙ্কা। পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব সরকারিভাবে হাতে তুলে নিতে। সোমবার তাঁর সঙ্গেই আসছেন রাহুল গান্ধী ও জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। জ্যোতিরাদিত্যকে দেওয়া হয়েছে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব। প্রিয়াঙ্কা ও জ্যোতিরাদিত্য থাকলেও সম্ভবত সোমবারই ফিরে যাওয়ার কথা রাহুলের। আর দায়িত্বভার হাতে নিয়ে এই সফরে প্রথমেই প্রদেশ কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা ও পদাধিকারীদের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন প্রিয়াঙ্কা।

- Advertisement -

রাহুল, প্রিয়াঙ্কা এবং সন্ধে জ্যোতিরাদিত্যের এই সফরকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছেন রাজনীতির কারবারিরা। মনে করা হচ্ছে, লোকসভা নির্বাচনের আগে এই সফরের মধ্যে দিয়েই কংগ্রেস প্রচার শুরু করতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। ফলে কংগ্রেস কর্মীদের মধ্যেও উচ্ছ্বাস চোখে পড়ার মতো।

উত্তরপ্রদেশের ৮০টি লোকসভা আসনের মধ্যে ৪২টির দায়িত্বভার থাকছে প্রিয়াঙ্কার হাতে। চার দিনের এই সফরে দলের কেন্দ্রওয়ারি নেতা ও পদাধিকারীদের সঙ্গে পৃথকভাবে বৈঠক করবেন তিনি। কংগ্রেস মুখপাত্র অংশু অবস্তি এমনটাই জানিয়েছেন সংবাদমাধ্যমকে।

তিনি বলেন, এই বৈঠকের জন্য কংগ্রেসের প্রাক্তন এমপি, বিধায়ক ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের নামের তালিকা চেয়ে পাঠানো হয়েছে দলের জেলা সভাপতিদের কাছে। প্রতিটি লোকসভা কেন্দ্রের নেতাদের জন্য সাক্ষাতের পৃথক সময় নির্ধারিত হয়েছে। বৈঠকের সময় এলাকাভিত্তিক বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে বিস্তারিতভাবে আলোচনা চলবে। সফর চলাকালীন প্রিয়াঙ্কা ও জ্যোতিরাদিত্য বৈঠক করবেন কংগ্রেসের জেলা ও শহর সভাপতিদের সঙ্গেও।