জাতীয় নির্বাচনের আগে সম্ভবত মোদী-হাসিনার শেষ সাক্ষাত

ঢাকা: নির্বাচনের আগেই সম্ভবত এটাই হাসিনা ও মোদীর শেষ আন্তর্জাতিক মঞ্চে দেখা৷ ফলে দুই প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক ঘিরে জল্পনা বাড়ছে৷ নেপালে বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১৯৯৭ সালে প্রতিষ্ঠা হয় বে অব বেঙ্গল ইনিশিয়েটিভ ফর মাল্টিসেক্টরাল, টেকনিকাল এন্ড ইকনমিক কোঅপারেশন বা বিমসটেক৷ কাঠমান্ডুতে এবারের বৈঠকে হাজির হচ্ছেন সদস্য দেশগুলির প্রধানমন্ত্রীরা৷ সার্ক বাতিল হওয়ার পর বিমসটেক সম্মেলনের গুরুত্ব বেড়েছে দক্ষিণ এশিয়ার রাজনীতিতে৷ বুধবার ঢাকায় বাংলাদেশের বিদেশ প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম সাংবাদিক বৈঠকে জানান, বিমসটেক সম্মেলন অংশ নেয়ার পাশাপাশি নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আলাদা বৈঠক হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বাংলাদেশ ও ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে এই সম্মেলনের মঞ্চ খুবই উপযোগী হবে বলেও মনে করা হচ্ছে৷

বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু যাচ্ছেন শেখ হাসিনা৷ বিমান বন্দর থেকেই তাঁকে বিশেষ সম্মানে নিয়ে যাওয়া হবে সম্মেলন কেন্দ্রে৷ এরপরেই তিনি সাক্ষাৎ করবেন নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারী ও প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মার ওলির সঙ্গে৷

- Advertisement -

বিমসটেক সম্মেলনের অন্যতম সদস্য হল মায়ানমার৷ কিন্তু সাম্প্রতিক রোহিঙ্গা শরণার্থী ইস্যুতে সে দেশের সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক গরম হয়েছে বারে বারে৷ সেনার অত্যাচারে মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে পালিয়ে আসা লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গা শরণার্থীরা বাংলাদেশের চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন৷ তাদের ফিরিয়ে নিতে গড়িমসি করছে মায়ানমার সরকার৷

এদিকে মায়ানমার সরকারের দাবি, গত বছর রাখাইন প্রদেশ সেনা চৌকিতে হামলা চালিয়েছিল রোহিঙ্গা সশস্ত্র গোষ্ঠী৷ তাদের রুখতে গিয়েই সেনা অভিযান চালানো হয়৷ যদিও সেই অভিযানে সেনার বাহিনীর বিরুদ্ধে গণহত্যা, গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে৷ এর জেরে রাষ্ট্রসংঘ সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মঞ্চে মায়ানমারের সর্বোচ্চ নেত্রী আউং সান সু কি সমালোচিত হয়েছেন৷

নেপালে বিমসটেক সম্মেলনে সু কি থাকবেন না বলেই জানা গিয়েছে৷ তাঁর পরিবর্তে হাজির থাকছেন সেদেশের প্রেসিডেন্ট৷

Advertisement
----
-----