অসামাজিক কাজ রুখতে গিয়ে ফের আক্রান্ত প্রতিবাদী

ফাইল ছবি

ক্যানিং: এলাকায় অসামাজিক কাজকর্মের প্রতিবাদ করে দুষ্কৃতিদের হাতে আক্রান্ত হলেন এক ব্যক্তি৷ ঘটনাটি দক্ষিণ ২৪ পরগণার ক্যানিং থানার দক্ষিণ অঙ্গদবেরিয়া গ্রামের৷ প্রহৃত ব্যক্তির নাম সিরাজুল নস্কর৷ গুরুতর আহত অবস্থায় বর্তমানে তিনি ক্যানিং মহকুমা হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন৷ জানা গিয়েছে, ঘটনায় জড়িত অভিযুক্তদের নাম আজিজুল সরদার, রফিকুল সরদার ও রমজান সরদার৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের মধ্যে কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ৷

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় বাজার করে বাড়ি ফিরছিলেন সিরাজুলবাবু৷ সেই সময় হঠাৎ তার উপর চড়াও হয় তিন অভিযুক্ত৷ শাবল, রড ও কাঠারি দিয়ে তাকে বেধড়ক মারধর করে৷ নিজেকে বাঁচাতে চিৎকার করতে শুরু করেন সিরাজুলবাবু৷ তাঁর আর্ত চিৎকারে ছুটে আসেন এলাকাবাসীরা৷ কিন্তু তাদের আসতে দেখেই পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা৷ রক্তাক্ত অবস্থায় সিরাজুলবাবুকে উদ্ধার করে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা৷ বর্তমানে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন৷ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সিরাজুলবাবুর মাথায়, মুখে ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর আঘাত লেগেছে৷ তার বেশ কয়েকটি দাঁতও ভেঙে গিয়েছে৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় প্রতিদিনই রাস্তার ধারে বসে মদ খেত, জুয়া খেলত ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করত অভিযুক্ত দুষ্কৃতিরা৷ প্রতিদিনের এই অসামাজিক কাজকর্ম সহ্য করতে না পেরে প্রতিবাদ করেছিলেন সিরাজুলবাবু৷ কিন্তু তাঁর প্রতিবাদের কোন তোয়াক্কা করেনি অভিযুক্তরা৷ আগের মতই চালিয়ে যাচ্ছিল জুয়া ও মদের আসর৷

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, মদ ও জুয়ার আসরের খোঁজে তল্লাশি অভিযান চালায় পুলিশ৷ সিরাজুলবাবুই পুলিশের কাছে তাদের অসামাজিক কাজকর্ম সম্পর্কে অভিযোগ জানিয়েছে৷ এই সন্দেহেই অভিযুক্তরা তাঁর উপর হামলা করে বলে অনুমান৷ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ক্যানিং থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ তবে এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তদের কাউকে গ্রেফতার করেননি তারা৷

Advertisement ---
---
-----