এনআরসির দাবিতে কোচবিহার রেল স্টেশনে বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: এনআরসি ইস্যু নিয়ে বিক্ষোভ দেখাল নিউ কোচবিহারের ‘আমরা বাঙালি’, ‘মানব সুরক্ষা ও জাগরণ সংগঠন৷’ এদিন নিউ কোচবিহার রেল স্টেশনে বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি অসমের মুখ্যমন্ত্রীর কুশ পুতুলও পোড়ায় আন্দোলনকারীরা৷

অসমে নাগরিক পঞ্জির বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার নিউ কোচবিহার স্টেশনে অবরোধের ডাক দেয় ‘মানব সুরক্ষা ও জাগরণ সংগঠন’ সঙ্গে ছিল ‘আমরা বাঙালি।’ এদিন নিউ কোচবিহার স্টেশনে ঢোকার মুখেই কয়েক’শ আন্দোলনকারীকে আটকে দেয় বিশাল পুলিশ ও আরপিএফ। রেল অবরোধ করতে না পেরে প্রায় দু’ঘণ্টা স্টেশনের বাইরে বিক্ষোভ দেখায় তারা। পরে অবশ্য পুলিশের হস্তক্ষেপে রেল অবরোধ না করে শুধুমাত্র বিক্ষোভ দেখিয়েই ফিরে যায় তাঁরা।

এদিন আমরা বাঙালীর পক্ষে দলেন্দ্র বর্মণ বলেন, অসমে বাঙালিদের বিতরণের ষড়যন্ত্র হচ্ছে৷ লক্ষ লক্ষ বাঙালিদের নাম তালিকা থেকে বাদ দিয়ে তাঁদের ডিটেকশন ক্যাম্পে পাঠানোর ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে৷ বাঙালিরা এই এনআরসি মেনে নেবে না।

তিনি আরও বলেন, ‘আজ আমরা এখানে রেল অবরোধ করতে এসেছিলাম৷ কিন্তু বিশাল পুলিশ বাহিনী আমাদের বাধা দেয়৷ কিন্তু আমরা জানিয়েছিলাম হয় অবরোধ করতে দিন না হলে আমাদের গ্রেফতার করুন৷ শেষে আমাদের গ্রেফতার করে ছেড়ে দেয়৷ তাই আমরা আজকের মত আন্দোলন প্রত্যাহার করলাম৷ দাবি মানা না হলে পরবর্তীকালে আবার রেল অবরোধ করা হবে৷’

- Advertisement -

এদিন এই আন্দোলনে উপস্থিত ছিলেন অসম থেকে আসা নাগরিক পঞ্জিতে নাম না থাকা বকসা জেলার বাসিন্দা কেশব পণ্ডিত। এদিন তিনি দাবি করেন তিনি কিছুদিন আগেও বিজেপি নেতা ছিলেন৷ কিন্তু এনআরসি চালুর পর তিনি দলত্যাগ করেছেন৷ তাঁর দাবি ষড়যন্ত্র করে অসমের বাঙ্গালিদের নাম তালিকায় রাখা হচ্ছেনা৷ সব কাগজ থাকার পরেও এনআরসি থেকে বাঙ্গালিদের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। তিনি এই নিয়ে বিজেপির সমালোচনা করে। এই আন্দোলনের পিছনে তৃণমূল কংগ্রেসের মদত রয়েছে৷ বিজেপি নেতা নিখিল রঞ্জন দে অভিযোগ করেন তৃণমূল কংগ্রেসের মদতেই এই আন্দোলন চলছে।

Advertisement ---
---
-----