ছাত্রীদের অন্তর্বাসের রঙ ঠিক করে বিতর্কে স্কুল

পুনে: স্কুলের সব ছাত্রীদের একই রঙের অন্তর্বাস পড়ে আসার ফতোয়া দিয়ে বিতর্কে জড়াল পুনের একটি স্কুল৷ ছাত্রীরা কী রঙের অন্তর্বাস পড়ে আসবে তা ঠিক করে দিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ৷ স্কুলের এমন অদ্ভূত ফতোয়ায় স্বাভাবিক ভাবে বিরক্ত বাবা-মায়েরা৷ ক্ষুব্ধ পড়ুয়ারাও৷ বুধবার অভিভাবকদের একাংশ একজোট হয়ে স্কুল গেটের বাইরে বিক্ষোভ দেখান৷ তাদের বিক্ষোভের জেরে বুধবার সাময়িকভাবে বিঘ্নিত হয় পঠন পাঠন৷

এক সর্বভারতীয় মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, পুনের এমআইটি স্কুল সম্প্রতি ছাত্রীদের উদ্দেশে একগুচ্ছ নিয়মাবলী জারি করে৷ তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল অন্তর্বাসের রঙ৷ সেখানে ছাত্রীদের সাদা অথবা স্কিন কালারের অন্তর্বাস পড়ে আসার নিদান দেওয়া হয়েছে৷ এছাড়া তাদের পোশাক বিধি নিয়েও কিছু নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷

এক পড়ুয়া জানিয়েছে, ওই নিয়মাবলীতে স্কার্টের দৈর্ঘ্যের মাপ দেওয়া হয়েছে৷ সেই মাপ অনুযায়ী স্কার্ট পড়ে আসতে বলা হয়েছে৷ ফতোয়ার এখানেই শেষ নেই৷ ছাত্রীরা কখন শৌচালয়ে যাবে কখন যেতে পারবে না সেই সময়ের কথাও উল্লেখ করা হয়েছে৷ একটি নির্দিষ্ট সময় ছাড়া তারা শৌচালয়ে যেতে পারবে না৷

- Advertisement -

এত কিছুর পরই উঠছে প্রশ্ন৷ একাধিক অভিভাবকরা জানিয়েছেন, বাচ্চারা কখন শৌচালয় যাবে সেটা ঠিক করে দেওয়া কি স্কুলের কাজ? তারা কী অন্তর্বাস পড়ে আসবে এটাও কি স্কুলের ভাবার বিষয়?

এত কিছুর পরেও ওই নিয়মাবলীতে বলা হয়েছে যে ছাত্রী বা অভিভাবকেরা এই নির্দেশ মানবে না তাদের কড়া শাস্তির মুখে পড়তে হবে৷ এমআইটি গ্রুপের এক্সিগিউটিভ ডিরেক্টর ডঃ সুচিত্রা নাগারের সাফাই, এই নির্দেশের পিছনে অন্য কোনও উদ্দেশ্য নেই৷ পড়ুয়া বা অভিভাবকদের অসুবিধায় ফেলতে তারা এমন নিয়ম চালু করেননি৷ অতীতে এমন কিছু ঘটনা ঘটেছে যার জেরে স্কুল কর্তৃপক্ষ এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷

Advertisement ---
---
-----