ক্ষমতায় কংগ্রেস, জিপের মাথায় মহিলাকে বেঁধে বিতর্কে পুলিশ

চন্ডীগড়: স্বামীকে পুলিশ তুলে নিয়ে গিয়েছিল৷ সেই ঘটনার প্রতিবাদ করেন স্ত্রী৷ সেই ‘অপরাধ’ এর শাস্তিস্বরূপ মধ্যবয়সী এক মহিলাকে জোর করে জিপের মাথায় বেঁধে ঘোরানো হল৷ পুলিশী নৃশংসতার এই ঘটনা অমৃতসরে৷

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, জিপে করে ঘোরানোর সময় হঠাত পড়ে যান ওই মহিলা৷ তাঁর মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে৷ এছাড়া শরীরের অন্যান্য অংশের আঘাতও মারাত্মক৷ স্থানীয় বাসিন্দাদের সাহায্যে দ্রুত তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে৷ অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে খবর৷

আরও পড়ুন: ফোন চার্জ দিতে ককপিটে ঢোকার বায়না যাত্রীর, তারপর..

প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে, ওই মহিলার বাড়ি অমৃতসরের ছাবিন্দা দেবী এলাকায়৷ সম্পত্তিজনিত বিবাদ মামলায় পুলিশ ওই মহিলার বাড়ি যায় তাঁর শ্বশুরকে জেরা করতে৷ কিন্তু সেই সময় মহিলার শ্বশুর বাড়িতে না থাকায় তাঁর স্বামীকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ৷ ওই মহিলা এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করেন৷ এতে রেগে যান পুলিশকর্মীরা৷ পাঞ্জাব পুলিশ ক্রাইম ব্রাঞ্চের অফিসাররা তখন জোর করে ওই মহিলাকে জিপের ছাদে বেধে গোটা শহর ঘোরায়৷

জিপে বেধে শহর ঘোরানোর সময় কেউ কেউ ঘটনাটি মোবাইলবন্দি করেন৷ পরে সেই ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়৷ পরে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের কাছে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গাড়িটি খুব দ্রুত গতিতে যাচ্ছিল৷ গাড়িটি বাঁক নেওয়ার সময় ওই মহিলা ব্যালান্স হারিয়ে মাটিতে পড়ে যান এবং মাথায় গুরুতর চোট পান৷ এরপর অমৃতসর জেলা হাসপাতালে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়৷

আরও পড়ুন: ভারতীয়দের থেকে শেখা উচিৎ পাকিস্তানের: মালিক

এই দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় শোরগোল ফেলে দিলেও এখনও জড়িত কোনও পুলিশ অফিসারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি৷ এই নিয়ে সরকারের তীব্র সমালোচনা করে শিরোমণি অকালি দল৷ এর আগে উত্তরপ্রদেশে পুলিশের চোখ রাঙানির নজির দেখেছে গোটা দেশ৷ মুসলিম যুবকের সঙ্গে প্রেম করায় যুবতীকে মারে পুলিশ৷ সেই ঘটনার পর তড়িঘড়ি অভিযুক্ত পুলিশ কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়৷

---- -----