চিদাম্বরমের রাফাল নিশানায় মোদী

কলকাতা: রাফাল প্রসঙ্গে নরেন্দ্র মোদীকে সরাসরি প্রশ্ন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমের৷ কেন রাফাল চুক্তি নিয়ে এত রাখঢাক? মুখ খুললে কি বড়সড় আর্থিক কারচুপি প্রকাশ্যে আসবে? কলকাতার বিধান ভবনে প্রদেশ কংগ্রেসের সভায় মোদীকে প্রশ্ন চিদাম্বরমের৷

বাদল অধিবেশনে রাফাল নিয়ে মোদীকে রাহুলের কটাক্ষকে হাতিয়ার করেই চিদাম্বরম মোদীকে নিশানা করলেন৷ জানালেন,২০১২ সালের ইউপিএ জামানায় স্বাক্ষরিত রাফাল চুক্তির সঙ্গে ২০১৫-র চুক্তির বিস্তর আর্থিক ফারাক৷ চিদাম্বরমের দাবি, প্রায় ৩ গুন বেশি টাকা বেড়েছে মোদী জামানায়৷ যার কারণ এখনও জানা যায়নি৷ ২০১৫ সালে ভারত-ফ্রান্স রাফাল চুক্তি লুকিয়ে করা হয়৷ ক্যাবিনেটকে না জানিয়ে কীভাবে ভারত চুক্তি করল? তাও স্পষ্ট হয়নি৷

পড়ুন:রাফায়েল চুক্তিতে ১২ হাজার কোটি টাকার ক্ষতির অভিযোগ কংগ্রেসের

- Advertisement -

চিদাম্বরম জানান,২০১৫ সালের চুক্তি অনুসারে , ৮টি রাফাল ভারত আমদানি করে, ১০৮ টি বিমান ভারতেই তৈরি হওয়ার কথা হয়৷ ইউপিএ জামানায় সেই বিমানের সংখ্যা ছিল ১২৬, তাতেও তিন গুন টাকা বাড়ানোর প্রয়োজন পড়েছে৷ রাহুল গান্ধি লোকসভা অধিবেশনে দাবিকে অস্বীকার করেছিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন৷ তিনি জানান, ফ্রান্সের সঙ্গে বিমান তৈরি সক্রান্ত যা চুক্তি হয়েছে তা বলা নিয়ম বিরুদ্ধ৷ সেই সূত্র ধরেই পি চিদাম্বরমের দাবি, ২০১৭ সালে ২৭ অক্টোবর ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী ভারতে আসার পরই সত্যিটা সামনে এসেছে৷ রাফাল বিমান পিছু কেন্দ্রের আর্থিক বরাদ্দের কারচুপি প্রকাশ্যে এসেছে৷

কংগ্রেসের দাবি, ফ্রান্সের থেকে নেওয়া ৩৬টি রাফাল বিমানপোত বিশাল অঙ্কের টাকা খরচ করে কিনেছে ভারত৷ যার হিসেব কেন্দ্র দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেনি৷ রাফাল চুক্তি নিয়ে ক্যাবিনেটকেও অন্ধকারে রাখা হয়৷ একেবারে নিশ্চুপ ভাবে গোটা রাফেল চুক্তি করে কেন্দ্র৷ যার জবাব চাইছে কংমগ্রেস সহ গোটা দেশের মানুষ বলে বিধান ভবনে জানান চিদাম্বরম৷

Advertisement
-----