ইউপিএ আমলের কোবাড, সাইবাবার গ্রেফতারির কথা ভুলে গিয়েছেন রাহুল গান্ধী

দেবময় ঘোষ: অরুন্ধতী রায় বলেছিলেন, ‘‘মনে হচ্ছে দেশে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে৷’’ রামচন্দ্র গুহ বলেছিলেন, ‘‘গান্ধী বেঁচে থাকলে তাঁকেও গ্রেফতার করত!’’ আর রাহুল গান্ধী বলেছিলেন, ‘‘মানবাধিকার কর্মীদের জেলে পুরে দিন৷ আপত্তি জানালে গুলি করে মারুন৷ নতুন ভারতে স্বাগত!’’

প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রে যুক্ত থাকা এবং মাওবাদীদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার অভিযোগে কবি অধ্যাপক ভারভারা রাওকে পুণে পুলিশ গ্রেফতার করেছে পুণে পুলিশ৷ সারা দেশ থেকে আরও চার সমাজকর্মীকে লক-আপ বন্দী করেছে পুলিশ৷ দেশ জুড়ে ওঠা বিতর্কের ঝড়ে কংগ্রেসের পালেও হাওয়া লেগেছে৷ কং-সভাপতি সকাল-বিকাল ট্যুইট করে মোদী সরকারকে আক্রমণ করছেন৷

কয়েকটি নাম হয়তো কং-সভাপতির স্মরণে নেই৷ এক, কোবাড গান্ধী, দুই, জি এন সাইবাবা, তিন, নকশাল নেতা আজাদ এবং কোটেশ্বর রাও ওরফে কিষাণজি৷ শেষ দুই জনকে পুলিশি অভিযানে ‘এনকাউন্টার’ করা হয়েছে৷

মাওবাদি তাত্ত্বিক নেতা কোবাড গান্ধী ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে দিল্লি থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন৷ সিপিআই (মাওবাদি) -এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এই নেতাকে গোপন অভিযান চালিয়ে ইউএপিএ আইনে পাকড়াও করে দিল্লি পুলিশের স্পেশ্যাল সেল৷ অসুস্থ কোবাডকে একজন প্রকৃত Urban Maoist বলা যেতে পারে৷

২০১৩ সালে তাঁর দিল্লির বাড়ি থেকে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জি এম সাইবাবাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল৷ অভিযোগ, সিপিআই (মাওবাদি) দের সঙ্গে যোগাযোগ এবং দেশদ্রোহীতা৷ ওই শিক্ষককে আজীবন কারাবাসে পাঠিয়েছিল মহারাষ্ট্রের একটি আদালত৷

অন্ধ্রপ্রদেশের আদিলাবাদ জেলায় সিপিআই (মাওবাদি) নেতা চেরুকুরি রাজকুমার ওরফে আজাদকে ‘এনকাউন্টার’ খতম করে পুলিশ৷ তার সঙ্গেই খুন হন সাংবাদিক হেমচন্দ্র পাণ্ডে৷ সালটা ছিল ২০১০৷ মাল্লোজুলা কোটেশ্বর রাও ওরফে কিষাণজি-কে এনকাউন্টার করা হয় ২০১১ সালের ২৪ নভেম্বর৷ সিপিআই (মাওবাদি) -এর পলিটব্যুরো এবং সেন্ট্রাল মিলিটারি কমিশনের সদস্য কিষাণজি কোবরা এবং সিআরপিএফ এবং পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের যৌথ আক্রমণে মারা যান৷

এখানে স্পষ্ট বলে রাখা প্রয়োজন, কোবাড, সাইবাবা গ্রেফতার হয়েছিলেন ইউপিএ সরকারের আমলেই৷ আজাদ এবং কিষাণজির এনকাউন্টারের সময়েও ইউপিএ সরকার ক্ষমতায় ছিল৷ রাহুল গান্ধীর মিডিয়া পরামর্শদাতারা তাঁকে নিশ্চই স্মরণ করিয়ে দেবেন৷

মোদী জমানায় পুলিশের অতি সক্রিয়াতা যেমন প্রশ্নের জন্ম দেয়, ইউপিএ জমানায় সরকারের ভূমিকাও কিন্তু প্রশ্নের বাইরে নয়৷ পুরানো প্রশ্ন ঘুরে ফিরে আসছে।

Advertisement
----
-----