৫০ লক্ষতেই প্রিয়ঙ্কাকে সেটেলমেন্টের পরামর্শ দিয়েছিলেন এই পরিচালক

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাহুল- প্রিয়ঙ্কা দ্বন্দ্বের কথা আজ কারো অজানা নয়। তবে রাহুল প্রিয়ঙ্কাকে কেন্দ্র করে উঠে আসছে নয়া তথ্য। একজন পরিচালক নাকি প্রিয়ঙ্কা কে বোঝাতেন যে ৫০ লক্ষ টাকা নিয়েই ঝামেলা মিটিয়ে নিতে। তবে প্রিয়ঙ্কা এই বিষয়ে একদমই রাজি ছিলেন না। নিজের জায়গা থেকে এক চুলও সরতে নারাজ তিনি। কারণ প্রিয়ঙ্কা চেয়েছিলেন ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা। তবে এত সংখ্যক টাকা দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন রাহুল। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছিল ঝামেলার সূত্রপাত।

তবে ঝামেলা এখনও মেটেনি। একই জায়গায় দাড়িয়ে রয়েছে তাঁদের সম্পর্ক। কিছুদিন আগে অরিন্দম শিলের ‘ব্যোমকেশ গোত্র’-র শুটিং করছিলেন রাহুল-প্রিয়ঙ্কা। আর সেখানেই পরিচালক অরিন্দম শিল তাঁদের মিডিয়েটর হিসাবে কাজ করতেন। সূত্রের খবর,অরিন্দম শিল নাকি প্রিয়ঙ্কাকে বোঝাতেন ৫০ লক্ষ টাকা নিয়েই ব্যাপার টা মিটিয়ে নিতে।কারণ ৫০ লক্ষ টাকাই দিতে রাজি হয়েছিলেন রাহুল। কিন্তু এই বিষয়ে প্রিয়ঙ্কা কোন কথাই শুনতে নারাজ।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, ফাটল ধরেছে সম্পর্কে, টলিপাড়ায় কানাঘুষো চললেও মুখ খোলেননি তাঁরা। এমনকি গত দু’বছর ধরে আলাদা থাকছেন। তবে মাঝে মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় হাজির গোটা পরিবার নিয়ে। অম্ল-মধুর রসায়নে চলছিল রাহুল-প্রিয়াঙ্কার বিবাহিত জীবনের চাকা। কিন্তু হঠাৎ তিক্ততায় ভরে ওঠে এই সম্পর্ক। মুখে কিছু বলা তো দূরের কথা। মানসিক এবং শারীরিক অত্যাচারের অভিযোগ এনে রাহুলের বিরুদ্ধে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেছেন প্রিয়াঙ্কা সরকার।

নায়িকার কথায়, “আমি চাইনি বিষয়টা সবার সামনে আসুক। তবে গত দু’বছর ধরে লড়াইয়ের জেরে সমস্যায় পড়েছেন তাঁদের ছোট্ট সন্তান সহজ। সেটা তিনি আর মেনে নিতে পারছেন না। তাই এই ব্যবস্থা। নায়িকা বলেন, “সহজের দায়িত্ব নিচ্ছে না রাহুল৷ এবছর সহজের স্কুলে ভর্তি হওয়ার কথা ছিল। এর জন্য প্রয়োজন প্রচুর পরিমাণ অর্থ। একটা সময় তা দেবে বলেছিল রাহুল। কিন্তু লাস্ট মিনিটে ও টাকাকে দিতে অস্বীকার করে।”

যার জেরে আদালতে খোরপোশের মামলা দায়ের করেছেন নায়িকা। সে নোটিস রাহুলের কাছেও পৌঁছে গিয়েছে। রাহুলের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী। এর মধ্যে প্রতারণা ও নির্যাতনের অভিযোগও রয়েছে। নিজের জন্য কিছুই চান না বলে জানিয়েছেন নায়িকা। যা তিনি করছেন, পুরোটাই সহজের জন্য করছেন। রাহুল সহজের মন বিষিয়ে দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ এনেছেন নায়িকা। আগামী জুলাই মাসে এ নিয়ে একটি শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

তবে প্রিয়াঙ্কা অভিযোগ গোটাটাই মিথ্যা বলে উড়িয়ে দিয়েছেন অভিনেতা। রাহুলের কথায়, ” সহজের দুধের খরচ থেকে শুরু করে সব দায়িত্ব এতদিন সে পালন করেছে। তবে সেসব রশিদ কেটে রাখেননি বলে আজ প্রমাণ দিতে পারবেন না”।

তিনি বলেন, ” সহজের পড়াশোনার জন্য ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা চেয়েছেন প্রিয়াঙ্কা৷ যা তাঁর পক্ষে দেওয়া অসম্ভব৷ রাহুলের কথায়, বাংলা সিরিয়ালে কাজ করে এতো টাকা একেবারে দেওয়া তাঁর পক্ষে কিছুতেই সম্ভব নয়৷ যে টাকা একসঙ্গে তিনি নিজেই কখনও দেখেননি, আর দেবেনই বা কী করে? এরপর তিনি এই পুরো বিষয়টির ওপর নিজের সন্দেহ প্রকাশ করেছেন৷ শুধুমাত্র সহজের পড়াশোনার জন্য এত টাকা চাওয়াটা রাহুলের কাছে বেশ হাস্যকর৷ প্রতি মাসে সহজের জন্য ২৫ হাজার টাকা তিনি প্রিয়াঙ্কাকে পাঠান৷ তাঁর কথায়, নিজের ছেলের দায়িত্ব নিতে তিনি অস্বীকার করবেনই বা কেন৷

Advertisement
----
-----