নয়াদিল্লি: মেট্রোস্টেশনের ধাঁচেই এবার তৈরি হবে রেলস্টেশন৷ স্টেশনে স্টেশনে বসছে বার কোডের স্ক্যানার সহ স্বয়ংক্রিয় ফ্ল্যাপ গেট৷ টিকিট পরীক্ষকদের টিকিট সংগ্রহের চাপ কমানোর জন্য এবং দ্রুত টিকিট পরীক্ষা করার জন্যই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে৷ ইতিমধ্যেই কলকাতা এবং দিল্লিতে এই গেট স্থাপন করার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে৷

সিআরআইএস সংস্থাটি রেলের জন্য এই বিশেষ গেট তৈরির দায়িত্বভার গ্রহণ করেছে৷ রেলওয়ে মন্ত্রকের উচ্চপদস্থ আধিকারিক সূত্রে খবর, এক একটি বার কোড স্ক্যানার সহ এই স্বয়ংক্রিয় গেট গুলি স্টেশনে বসাতে খরচ হবে প্রায় ৪লক্ষ টাকা৷ দিল্লির ব্রার স্কোয়ার স্টেশনে ইতিমধ্যেই এহেন একটি গেট বসানো হয়েছে পরীক্ষামূলকভাবে৷ রেলওয়ে সূত্রে জানানো হয়েছে, যদি এই গেটগুলি সঠিক পদ্ধতিতে পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করে তাহলে দেশ জুড়ে প্রতিটি স্টেশনেই এই বিশেষ গেটটি বসানো হবে৷

যাত্রীদের সুবিধার্থেই এহেন একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে৷ ভিড়বহুল স্টেশনে টিকিট পরীক্ষকদের কাছে টিকিট পরীক্ষা করার জন্য বেশ কিছুটা সময় ব্যায় হয়৷ সেই কারণেই যাত্রীদের সুবিধার্থে এবং টিকিট পরীক্ষকদের চাপ কমানোর উদ্দেশে এবং টিকিট পরীক্ষার কাজটি যাতে সঠিক ভাবে হয় সেই কারণেই এহেন একটি পরিকল্পনা গৃহিত হয়েছে৷

এই গেটগুলি স্টেশনের এমন জায়গাতেই বসানো হচ্ছে, যার জেরে ট্রেন ধরতে গেলেই যাত্রীদের এই সমস্ত গেটগুলির মধ্য দিয়েই যেতে হবে৷ তাই আপনার যদি অভ্যেস থাকে টিকিট না কেটে ট্রেনে যাতায়াত করার৷ তাহলে শিগগির আপনার স্বভাব বদলে ফেলুন৷

----
--