লাদাখের মরুভূমিতে জল জমাচ্ছেন বাস্তবের ইডিয়ট ব়্যাঞ্চো

লাদাখ: থ্রি-ইডিয়টস’ দেখেননি এমন মানুষ হয়ত রয়েছে কিনা তা জানা নেই৷ দেখে থাকলে সিনেমাটির বিখ্যাত চরিত্র ফুংসুখ ওয়্যাংড়ুকে নিশ্চয়ই মনে থাকবে৷জানেন কি?  সিনেমার চরিত্রটি একটি সত্যিকারের ব্যক্তিকে অবলম্বন করেই তৈরি করা হয়েছিল৷ যার আবিষ্কার বিজ্ঞানকে নয়া রূপ দিয়েছিল৷ তাঁর নাম সোনাম ওয়্যাংচুক৷ থাকেন লে-তে, পেশায় একজন ইঞ্জিনিয়র৷ সম্প্রতি তাঁর আবিষ্কার ‘আইস স্টুপাস’য়ের জন্য ‘রোলেক্স অ্যাওয়ার্ড ফর ইন্টারপ্রাইজ ২০১৬’ পুরস্কারও জিতেছেন তিনি৷ গর্বিত করছেন ভারতকে৷

কী এই ‘আইস স্টুপাস’ প্রজেক্ট?  ৫০ বছরের ওয়্যাংচুকের আবিষ্কার মেটাতে পারে মরু অঞ্চলের চাষাবাদের সমস্যা৷ জানা গিয়েছে, গ্রীষ্মকালে লাদাখের বহু অঞ্চলে জলের অভাবে চাষের কাজে অসুবিধা হয়৷ আর তাঁর ‘আইস স্টুপাস’  প্রোজেক্টের মধ্যেমে এই সমস্যারই সমাধান করতে চান  সোনাম ওয়্যাংচুক৷ যাতে আবহাওয়া পরিবর্তনের ফলে চাষের কাজে না অসুবিধার সম্মুখি হন স্থানীয়রা৷ কেমন ভাবে কাজ করবে ‘আইস স্টুপাস’? এই সিস্টেমের মাধ্যমে জলকে প্রয়োজনীয় সময়ের জন্য হিমবাহ হিসেবে দীর্ঘদিন জমিয়ে রাখা যাবে এবং দরকারে অল্প অল্প করে ব্যবহার করা যাবে৷

- Advertisement -

সোনাম ওয়্যাংচুক জানিয়েছেন, এমন আরও ২০টি ‘আইস স্টুপাস’ বানাতে চান তিনি৷ যার মাধ্যমে কয়েক মিলিয়ন লিটার জল জমিয়ে রাখা যাবে৷ এছাড়া তার ইচ্ছা রোলেক্স অ্যাওয়ার্ডের তাঁর প্রাপ্ত টাকাও নিজের এই প্রোজেক্টে ব্যবহার করা৷ বর্তমানে এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি করতে চলেছেন ইয়্যাংচুক যেখানের শিক্ষা লাদাখসহ আশপাশের অঞ্চলের মানুষদের নিজেদের সমস্যা সমাধানে সাহায্য করবে৷

আরও পড়ুন: খালি হাতে চিনের সঙ্গে লড়াই করে লাদাখ বাঁচিয়েছিল ভারতীয় সেনা

Advertisement ---
---
-----