নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার রিয়েলিটি শোয়ের প্রতিযোগী

ছবি- প্রতীকী

মুম্বই : রিয়েলিটি শোয়ের প্রতিযোগী আদিত্য গুপ্তকে, এক নাবালিকার ধর্ষণের অভিযোগে মঙ্গলবার গ্রেফতার করা হয়েছে৷ ১৭ বছর বয়সী মেয়েটিকে অপহরণ করে ধর্ষণ করেছে আদিত্য৷ মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চ তাকে হেফাজতে নেয়৷ অভিযুক্ত টেলিভিশনের এক জনপ্রিয় ডান্স রিয়েলিটি শোয়ের প্রতিযোগী৷ বছর ২০র আদিত্য মুম্বইয়ের আন্ধেরির বাসিন্দা৷

সূত্রের খবর, তিন মাস আগে ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে আদিত্য এবং সেই মেয়েটির বন্ধুত্ব হয়৷ রবিবার আদিত্য মেয়েটির সঙ্গে দেখা করে৷ মেয়েটির বাড়িও আন্ধেরীতে৷ সবরবন এলাকার বাসিন্দা সে৷ বিকেল ৫:৩০ নাগাদ আন্ধেরীতেই দেখা করে, আদিত্য তাকে নালাসপোরা নামক একটি জায়গায় নিয়ে যায়৷

সেখানে যাওয়ার পর একটি বাড়িতে গিয়ে ওঠে তারা৷ মেয়েটিকে খাবার দেওয়ার সময় খাবারে নেশার ওষুধ মিশিয়ে দেয় আদিত্য৷ কিছুক্ষণ পরই মেয়েটির জ্ঞান হারানোর সুযোগ নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে৷ ধর্ষণের পর মেয়েটিকে অর্ধচেতন অবস্থায় আন্ধেরীর ম্যাক ডনাল্ডস রেস্টুরেন্টে রেখে, সে সেখান থেকে পালিয়ে যায়৷ মেয়ের বাড়ি না ফেরায় তার পরিবার ডি এন নগর পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করে৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: শ্যুটিং সেটে গুরুতর আহত আলিয়া

অপহরণের অভিযোগ রেজিস্টার নিয়ে মেয়েটির সন্ধানে বরোয়ে পুলিশ৷ পরের দিন সকালে আন্ধেরীর একটি জায়গা থেকে অর্ধচেতন অবস্থাতেই উদ্ধার করা হয় মেয়েটিকে৷ জ্ঞান ফেরার পর মেয়েটি পুরো ঘটনাটি খুলে বলে৷ আদিত্যকে চিহ্নিতও করে সে৷ আদিত্যের ফোন নম্বর পাওয়ার জন্য পুলিশ নাবালিকার ফোন চেক করে৷ কিন্তু মেয়েটি আদিত্যের নম্বর সহ তার সঙ্গে হওয়া পুরো চ্যাট হিস্ট্রি ডিলিট করে দিয়েছিল৷

আরও পড়ুন:  টলিপাড়ায় ‘চরিত্রহীন’! তৈরি হল ধোঁয়াশা

জিজ্ঞাসাবাদের পর মেয়েটিকে ভাবা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়৷ সেখানে মেডিকাল টেস্টে ধরা পড়ে যে নাবালিকার ওপর যৌন নিগ্রহ হয়েছে৷ সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখার পর এবং তদন্তের চালানোর পর পুলিশ মঙ্গলবার আদিত্যকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে৷ সূত্রের খবর, আদিত্যের বিরুদ্ধে POSCO act এর মামলা জারি করা হয়েছে৷

Advertisement ---
---
-----