গুয়াতেমালায় মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ১০০

গুয়াতেমালা সিটি: আশঙ্কাকে সত্যি প্রমাণ করে ক্রমশই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা৷ গুয়াতেমালার ফুয়েগো আগ্নেয়গিরি এখনও পর্যন্ত প্রাণ নিয়েছে প্রায় ১০৯ জনের৷ রবিবার এই অগ্ন্যুৎপাতের শুরু৷

বিশেষজ্ঞদের মতে ১৯৭৪ সালের পর দেশে এটিই সবচেয়ে বড় অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা। অগ্ন্যুৎপাতে ছাই ও ধোঁয়া আকাশে ১০ কিলোমিটার পর্যন্ত উঠে যায়, এতে আশপাশের বেশ কয়েকটি এলাকা ছাইয়ে ঢাকা পড়ে। স্থানীয়দের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ইতিমধ্যেই৷ চলছে উদ্ধারকার্য৷ন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট এজেন্সি CONRED-এর মুখপাত্র ডেভিড ডে লিওন জানান, এখন ভয়ঙ্কর অবস্থা হয়ে রয়েছে গুয়াতেমালার৷ স্থানীয়দের এই এলাকা থেকে নিরাপদ দূরত্বে থাকারওপরেই জোর দিয়েছেন তিনি৷

বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রশাসন নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর শোকপ্রকাশ করে জানায়, গুয়াতেমালার অনুরোধে অর্থ, খাদ্য, বস্ত্র, জল, বিভিন্ন জরুরি বিষয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে আমেরিকা৷ হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যাঁরা দগ্ধ হয়েছে, যাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক, ফ্লোরিডাতে তাদের চিকিৎসার জন্য নিয়ে যেতে বিশেষ বিমানের ব্যবস্থাও করা হয়েছে৷

- Advertisement -

দ্য ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব রেড ক্রস অ্যান্ড রেড ক্রেসেন্ট সোসাইটিজ-ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে গুয়াতেমালার আর্থিক ক্ষতি নিয়ে দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছে৷ আগ্নেয়গিরির ফুয়েগোর আশপাশের ৬,৮৯০ একর এলাকার কফি বাগান ছাই ও বালিতে ছেয়ে গিয়েছে। এতে গুয়াতেমালার কফি উৎপাদন বেশ ক্ষতির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

Advertisement ---
---
-----