নুলিয়ার চেষ্টায় মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরলেন পর্যটক

স্টাফ রিপোর্টার, দিঘা: মৃত্যুর মুখ থেকে প্রাণে বাঁচলেন এক পর্যটক৷ বাঁচালো এক নুলিয়া৷ পুলিশি নিরাপত্তাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মদ্যপ অবস্থায় সমুদ্র স্নানে নেমেছিলেন পর্যটক৷ আর সেখানেই ঘটল যত বিপত্তি৷ নেশার ঘোরে সমুদ্রের ঢেউয়ে তলিয়ে যেতে থাকে ওই পর্যটক। আর ঠিক তখনই পর্যটকের পরিবারের চিৎকার শুনে নুলিয়ারা সমুদ্রে ঝাঁপিয়ে পড়ে৷ নুলিয়াদের সাহায্যেই উদ্ধার হয় ওই পর্যটক৷ আহত পর্যটকের নাম মুকেশ কুমার (২৮)। বিহারের পাটনার ধানরুয়া থানার হাসুবপুর এলাকার বাসিন্দা৷

আরও পড়ুন: আগামী মাসেই মুখোমুখি হবেন ইমরান-মোদী!

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার মুকেশবাবু পরিবারের সঙ্গে দিঘায় ঘুরতে আসেন। শনিবার দুপুরে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সঙ্গে নিউ দিঘার হলিডে হোম ঘাটেই স্নানে নামেন তাঁরা। তবে ওই ঘাটের দায়িত্বে থাকা পুলিশ সমুদ্রের বেশী দূরে যেতে আগেভাগেই বারণ করে দেয়৷ কিন্তু মদ্যপ অবস্থায় থাকায় সেই নিষেধাজ্ঞাকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে সমুদ্রে অনেকটা এগিয়ে যান মুকেশবাবু৷

- Advertisement DFP -

এদিকে একের পর এক ঢেউয়ে বেসামাল হয়ে পড়েন তিনি৷ পাড়ে থাকা পর্যটক ও তাঁর পরিবার অনেক পড়ে বুঝতে পারেন যে তিনি তলিয়ে যাচ্ছেন৷ তখনই তাঁকে বাঁচানোর জন্য পরিবারের সদস্যরা চিৎকার করতে থাকেন৷ আর সেই চিৎকার শুনেই নুলিয়ারা ঝাঁপিয়ে পড়ে জল থেকে উদ্ধার করে মুকেশবাবুকে৷

আরও পড়ুন: প্রচুর নিয়োগ বাংলায়: প্রকাশিত হল গ্রুপ-ডি’এর ফলাফল

এই প্রসঙ্গে দিঘা থানার ওসি বাসুকিনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সমুদ্রে স্নানে নেমে এক পর্যটক তলিয়ে যাচ্ছিল। সেই সময় আমাদের কর্মরত নুলিয়ারা উদ্ধার করে। বর্তমানে তিনি সুস্থ রয়েছেন। নুলিয়াদের প্রচেষ্টায় বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব হয় বিহার থেকে আগত পর্যটক মুকেশ কুমারকে।’’

প্রসঙ্গত, একই দিনে দিঘার সমুদ্রে স্নানে নেমে তলিয়ে মৃত্যু হল এক পর্যটকের। তবে মৃত পর্যটকের পরিচয় এখনও জানা সম্ভব হয়নি৷ এমনকি পর্যটকের মৃত্যু ঠিক কিভাবে হয়েছে তা-ও পরিষ্কার নয়। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপান করে সমুদ্রে স্নানে নেমে তলিয়ে মৃত্যু হয় এই পর্যটকের। দেহটি উদ্ধার করে পুলিশ থানায় নিয়ে যায়। দিঘা থানার পুলিশ মৃত পর্যটকের পরিচয় জানার চেষ্টা করছে।

আরও পড়ুন: পাচারকারীর হাত থেকে রক্ষা! তবু ভবিষ্যতে ঝুলে রইল প্রশ্নচিহ্ন

অতিরিক্ত মদ্যপান করে সমুদ্রে স্নানে নেমে প্রতিনিয়ত ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে। যেখানে স্থানীয় প্রশাসন সমুদ্র স্নানের ব্যাপারে একাধিক আইন তৈরি করেছে, সেখানে এই ভাবে দিনের পর দিন মৃত্যুকে ঘিরে নিরাপত্তা ব্যবস্থার নিয়ে উঠছে হাজারো প্রশ্ন।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুতেই দিঘার সমুদ্রে স্নানে নেমে নিখোঁজ হয়ে যান এক পর্যটক৷ নিখোঁজ যুবকের সন্ধানে সমুদ্রে নুলিয়া নামিয়ে শুরু করা হয় উদ্ধার কাজ৷ পরিবারের সদস্যদের দাবি ছিল, সমুদ্রে নামার মিনিট ২০ পর থেকেই তাঁকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না৷ খবর দেওয়া হয় পুলিশে৷ নুলিয়া নামিয়ে নিখোঁজের সন্ধানে উদ্ধার কাজ শুরু করা হলেও কোনও খবর মেলে না৷

Advertisement
----
-----