এটিএম থেকে ৮৬ হাজার টাকা খোয়ালেন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক

ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: মেদিনীপুরের পর এবার হলদিয়া৷ এটিএম জালিয়াতির স্বীকার হলেন এক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে মহিষাদল থানার লক্ষ্যা গ্রামের বাসিন্দা অবসর প্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক ননীগোপাল মন্ডলের সঙ্গে৷

এটিএমে নিরাপত্তারক্ষী না থাকায় টাকা তুলতে গিয়ে প্রতারিত হলেন আশিতিপর বৃদ্ধ। ব্যাংক কর্মী পরিচয় দিয়ে বৃদ্ধের এটিএম থেকে ৮৬ হাজার টাকা তুলে নিল প্রতারক।

আরও পড়ুন: দশ দফা দাবি নিয়ে আন্দোলনে পার্শ্বশিক্ষক শিক্ষিকারা

- Advertisement -

ননীগোপাল বাবু জানিয়েছেন, ৪ জুন সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ মহিষাদলে স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার এটিএমে পেনশনের টাকা তুলতে যান তিনি। তিনি চোখে একটু কম দেখেন তাই প্রতিবারই তিনি নিরাপত্তারক্ষীর মাধ্যমে টাকা তোলেন। সেদিনও তিনি টাকা তুলতে গিয়ে দেখেন নিরাপত্তারক্ষী নেই সেখানে৷

এরপর এটিএমের টাকা তোলার লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা এক ব্যক্তি নিজেকে ব্যাংকের কর্মী বলে পরিচয় দেন। এই শুনে ননীগোপাল বাবু তাঁর এটিএম কার্ডটি ওই ব্যক্তির হাতে দেন। অমল পাল নামে ওই ব্যক্তি দুবার চেষ্টা করার পর ননীগোপাল বাবুকে মিলি দাস নামের একটি এটিএম কার্ড হাতে দিয়ে বলে সমস্যা হচ্ছে টাকা তোলা যাচ্ছে না৷ তাঁকে পাশ বইটা নিয়ে ব্যাংকে আপডেট করানোর কথাও বলে৷

আরও পড়ুন: মোদীকে ‘অপমান’ করায় লেখককে হুমকি রাজ্য বিজেপি সভাপতির

সমস্যার কথা শুনে ননীগোপাল বাবু ব্যাংকে বই আপটু ডেট করাতে যান৷ তখন ব্যাংক কর্মী জানায় পাঁচ দফায় ৮৬ হাজার টাকা তোলা হয়েছে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে।

এরপরই তিনি মহিষাদল থানা অভিযোগ দায়ের করে৷ পাশাপাশি স্টেট ব্যাংকের মহিষাদল শাখায় ম্যানেজারকেও বিষয়টি জানান। ব্যাংক ম্যানেজার সম্পূর্ণ তথ্য বের করেন জানান, অমল পাল নামে এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে টাকাটি ট্রান্সফার হয়েছে।

আরও পড়ুন: নিম্নমানের বাঁধ সারাইয়ের কাজ রুখল এলাকাবাসী

তিনি সঙ্গে সঙ্গে ননীগোপাল বাবুর অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেন। ব্যাংক থেকে পাওয়া সম্পূর্ণ তথ্য মহিষাদল থানায় জমা দেন ননীগোপাল বাবু। মহিষাদল থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ব্যাংকগুলি প্রতিনিয়ত সচেতন করছে গ্রাহকদের তবুও প্রায়ই নানা ভাবে প্রতারিত হচ্ছে গ্রাহকরা।

Advertisement
----
-----