অক্ষরেখার পাকচক্রে চাক্কা জ্যাম উল্টোরথে

সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়: অক্ষরেখার অল্প তফাত, তাতেই উলটো পুরীর রথের চাকায় জ্যাম লেগে গিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ যখন ভারি বৃষ্টির অপেক্ষায় রয়েছে তখন ভাসছে পাশের রাজ্য ওড়িশা। এর একমাত্র কারন অক্ষরেখায় সামান্যতম পার্থক্যে নিম্নচাপের স্থলভূমিতে প্রবেশ। এতেই ডুবে গিয়েছে জগন্নাথ দেবের রথের চাকা।

উল্টো রথে বৃষ্টি হয় এমন একটা প্রচলিত ধারণা মানুষের মধ্যে রয়েছে। কিন্তু তা বলে এমন বৃষ্টি হয় না যে জগন্নাথ দেবের রথের চাকা ডুবে গিয়ে মাসির বাড়ি থেকে ফেরার রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার অবস্থা হয়। এবার সেটাই হয়েছে। বাংলার শ্রাবণ মাসের পাঁচ তারিখ যখন বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি চলছে, তখনই বৃষ্টির জলে ডুবে গিয়েছে জগন্নাথভূমি। এর মূলে রয়েছে বঙ্গোপসাগরের উপর তৈরি হওয়া গভীর নিম্নচাপ। রবিবার পেরিয়ে সোমবারেও যা বৃষ্টির ‘বাণ’ চালিয়ে যাবে ওড়িশায়। এমনটাই জানিয়েছে দিল্লির মৌসম ভবন।

কিন্তু কি কারণে এই পরিস্থিতি হল ? আলিপুর আবহাওয়া দফতরে পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি এই রাজ্যের কাছাকাছি রাজ্যের পূর্বাভাস মেলে। আবহবিদরা জানাচ্ছেন , শনিবার যখন নিম্নচাপটি স্থলভাগে প্রবেশ করে তখন সেটির অবস্থা ছিল ২১.০ ডিগ্রি উত্তর। এখানেই গোল পেকেছে। আরও কয়েক ডিগ্রি সরে যদি সেটি স্থলভাগে প্রবেশ করত তাহলে ভারি বৃষ্টি হত দক্ষিণবঙ্গে। এই ভারি বৃষ্টি আমন ধান চাষের জন্য দরকারও ছিল। সে সব কিছুই হয়নি। উলটে জলে হাবুডুবু খাচ্ছে ওড়িশা।

- Advertisement -

গত ২৪ ঘণ্টায় পুরীতে ২৬৮.৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। সম্বলপুরে ৫৬৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। কটক ও ভুবনেশ্বরে ২১১.২ মিলিমিটার ও ১৯৪.৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে ভুবনেশ্বরের আবহাওয়া দফতরের থেকে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে বর্তমানে এই নিম্নচাপটি এগিয়ে যাচ্ছে উত্তর – পশ্চিম বরাবর। বর্তমানে সেটির অবস্থান ২২.৬ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশে। ঘণ্টায় ৬ কিলোমিটার গতিতে এটি এগিয়ে যাচ্ছে। অবস্থান করছে ঝাড়খণ্ডের উপরে। কিন্তু এখনও এর প্রভাব রয়েছে ওড়িশার উপর। এর জেরে দক্ষিণবঙ্গে যেমন বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হবে তেমনই রবিবারেও ভারি বৃষ্টি হবে প্রতিবেশি রাজ্যে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় এই পরিস্থিতির বিশেষ উন্নতি দেখছে না হাওয়া অফিস।

আজও যদি এই বৃষ্টি হয় তাহলে উল্টোরথ পেরিয়ে গেলেও জগন্নাথের বাড়ি ফেরা বেশ অসুবিধার হয়ে যাবে। রথ ফেরাতে মন্দির কর্তৃপক্ষ নিশ্চয় ব্যবস্থা নেবেন। কিন্তু বৃষ্টি যে সেই পথে বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে তা হাওয়া অফিসের পূর্বাভাসই বলে দিচ্ছে।

Advertisement
---