কবিতার লাইনে মিশে গিয়েছে ঋ-এর ভালবাসা

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : অ্যাপার্টমেন্টে একাই থাকে অদিতি মেহতা৷ স্বাধীনচেতা মেয়ে বলতে যা বোঝায়, অদিতি একেবারে সেরমই একজন মেয়ে৷ ঘটনাচক্রে তাঁর সঙ্গে দেখা হয় ইমনের৷ ইমন ছেলেটা একেবারে আলাদা৷ আর পাঁচটা কলেজপড়ুয়ার মতো সে নয়৷ ওর হাবভাব অনেকটা ‘কবি কবি ভাব’র মতো৷ তবে একেবারেই ছন্দের অভাব নেই তাতে৷ অদিতির বাড়ির নীচেই একটা গাড়ি ইমনের সাইকেলে ধাক্কা মেরে৷ পড়ে গিয়ে পায়ে চোট পেয়েছিল৷ অদিতি তাকে বাড়ি নিয়ে এসে পায়ে ঔষুধ লাগিয়ে দেয়৷ সেখান থেকেই অদিতি-ইমনের সাক্ষাৎ৷

দু’জনের গল্প নিয়েই তৈরি হয়েছে ‘ইয়ে রিশতা’ শর্ট ফিল্মটি৷ সম্প্রতি শহরের একটি পাঁচতারা পাবে শর্ট ফিল্মটি লঞ্চ হল৷ স্বল্পদৈর্ঘ্যের এই ছবিতে অদিতি মেহতার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ঋ অর্থাৎ ঋতুপর্ণা সেন৷ এবং ইমনের চরিত্রে ঋক অমৃতের নামের একজন নতুন অভিনেতা৷ ছবিটি পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন সৌম্যজিৎ আদক এবং তাঁর টিম৷ প্রযোজনায় ছিল ‘শাইনিং ফিল্মস’ শ্রট ফিল্মের লঞ্চে সৌম্যজিৎ আদক, ঋ, ঋকসহ উপস্থিত ছিলেন অন্তশীলা ঘোষ, টেলিভিশন অভিনেতা ইশান মজুমদার, রণজয় বিষ্ণ, টেলিভিশন অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা মণ্ডল৷ এমনকি হিন্দি ধারাবাহিক ‘পৃথ্বী বল্লভ’র অভিনেত্রী দিব্যাঙ্গনা জৈনও হাজির ছিলেন এই অনুষ্ঠানে৷

- Advertisement -

স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবিটি প্রথমে দেখতে শুরু করলে মনে হবে একটি কমবয়সী ছেলের সঙ্গে একজন মাঝবয়সী মহিলার প্রেম৷ চিত্রনাট্যের মোড়কে মোড়কে খুলবে আসল গল্প৷ ইমন এবং অদিতির বয়সের অনেকটা তফাৎ থাকলেও, মিল রয়েছে পছন্দে৷ দু’জনেই কবিতা পড়তে পছন্দ করে৷ তাদের পছন্দসই কিছু কবিতার লাইন গোটা ফিল্ম জুড়ে আওড়িয়ে গিয়েছে ইমন৷ সেভাবেই একে অপরের সঙ্গে কানেক্ট করতে শুরু করে তারা৷

একসঙ্গে অনেকটা সময় কাটাতে কাটাতে ইমন জানতে পারে, অদিতির জীবনে রন নামের একজন পুরুষ আছে৷ বয়সটা কম বলেই হয়তো অদিতির প্রতি আকর্ষিত হয়ে গিয়েছিল ইমন৷ সেই অনুভূতির কারণে রনের নাম শুনে রেগে গিয়েছিল ইমন৷ তবে একদিন সে জানতে পারে রন আসলে অদিতির ছেলে৷ যে আর এই পৃথিবীতে নেই৷ কিছু কিছু সম্পর্কের কোনও নাম হয় না৷ তেমনই ইমন এবং অদিতির সম্পর্কেরও কোনও নাম নেই৷ সেই বেনামি সম্পর্কই ফুটে উঠেছে ছবিতে৷

Advertisement ---
---
-----