স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ‘কেরিয়ারে’ একটা বড় সাফল্য মিলেছিল। কিন্তু হল না শেষরক্ষা। সৌজন্যে কলকাতা পুলিশ।

হাওড়ার সালকিয়া এলাকার বাসিন্দা শেখ ইবাদত। ২৮ বছর বয়সী এক যুবকের পেশা চুরি এবং লুঠপাট চালানো। কলকাতার হরিদেবপুর থানা এলাকার একটি মোবাইলের দোকানে অভিযান চালিয়ে হাতে এসেছিল অনেক মাল। কিন্তু তা রাখতে পারল না শেখ ইবাদত।

আরও পড়ুন- ৪০ লক্ষ হাতিয়ে গ্রেফতার গোলাপি শহরে

চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারি হরিদেবপুর থানা এলাকার একটি মোবাইলের দোকান থেকে খোয়া যায় ৪২ টি মোবাইল, একটি ল্যাপটপ এবং নগদ ৬৫ হাজার টাকা। দোকানের শাটার ভেঙে চালানো হয়েছিল লুঠপাট। যা করেছিল হাওড়ার শেখ ইবাদত।

থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হতেই আসরে নামে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। সিসিটিভি ফুটেজ এবং স্থানীয় সূত্রদের নিয়ে শুরু হয় পুলিশের তদন্ত। সাফল্য এল প্রায় মাস দুয়েক পরে। মার্চ মাসের ১৯ তারিখে গ্রেফতার করা হয় হরিদেবপুর থানা এলাকার মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনায় মূল অভিযুক্ত শেখ ইবাদতকে। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২৭টি মোবাইল।

লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, জেরায় আরও দুই জনের নাম জানিয়েছে শেখ ইবাদত। যারা হল সাগর এবং সাহিন। এই দুই জন সরাসরি লুঠের সঙ্গে জড়িত না থাকলেও খোয়া যাওয়া অনেক মাল এদের মাধ্যমেই পাচার হয়েছে বলে জানিয়েছে ধৃত শেখ। সাগর এবং সাহিনের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশ।

----
--