‘দক্ষিণ কোরিয়ার মাটিতে মিসাইল সিস্টেম থাড বসালে ফল ভালো হবে না’

মস্কো:  দক্ষিণ কোরিয়ায় মার্কিন অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘থাড’ মোতায়েনের বিরুদ্ধে যৌথ পাল্টা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। দক্ষিণ কোরিয়া এবং আমেরিকার বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে চিন। যদিও কি ব্যবস্থা নেওয়া হবে সে বিষয়ে পরিষ্কারভাবে কিছু বলা হয়নি। চিন সরকারের একমাত্র মুখপত্রে এই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। শুধু চিনই নয়, থাড বসানো হলে দুই দেশের বিরুদ্ধেই পালটা ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে রাশিয়াও।

মস্কো ও বেজিং উন্নত মিসাইল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বসানোর পরিপ্রেক্ষিতে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, ‘টার্মিনাল হাই অ্যাল্টিটিউড এরিয়া ডিফেন্স’ বা ‘থাড’ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দক্ষিণ কোরিয়ায় মোতায়েনের ফলে এই অঞ্চলে উত্তেজনা আরও তুঙ্গে উঠবে। এই ব্যবস্থা মোতায়েনের আগে আরও একবার দুই দেশ অর্থাৎ আমেরিকা এবং দক্ষিণ কোরিয়াকে ভাবার আবেদন জানিয়েছে।

সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার মাটিতে থাড বসানো নিয়ে রুশ ডেপুটি বিদেশমন্ত্রী ইগর মোরগুলভ এবং চিনা সরকারের সহকারী বিদেশমন্ত্রী কোং সুয়ানইউ’র মধ্যে বৈঠক হয়। এই বৈঠকের পরেই এই দুইদেশের পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, কোরিয় উপদ্বীপে ‘থাড’ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের লক্ষ্যে গত জুলাইয়ে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করে ওয়াশিংটন এবং সিউল। দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে উত্তর কোরিয়ার যে কোনও হামলা মোকাবিলা জন্য এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা মোতায়েন করা হবে বলে দাবি করেছে আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়া। কিন্তু এর বিরুদ্ধে চিন ও রাশিয়ার উদ্বেগ প্রকাশের অন্যতম কারণ হলো, ‘থাড’ এর রাডার ব্যবস্থা দেশ দু’টির সীমান্ত অতিক্রম করে তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে। এতে দেশ দুটির নিরাপত্তা বিপদের মুখে পড়বে বলে তারা বারবার জোর দিয়ে বলছে।

Advertisement ---
---
-----