কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলা ফের বিপাকে ফেলল সলমন কে

মুম্বই: পিছু ছাড়তে চাইলেও এত তাড়াতাড়ি পিছু ছাড়ছে না অভিনেতা সলমন খানের অতীত৷ এ এন আই এর করা ট্যুইট অনুযায়ী কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত সলমন খান দেশের বাইরে যেতে গেলে আলাদা করে তাঁকে আদালতের অনুমতি নিতে হবে। এমনটাই জানিয়েছে যোধপুর আদালত। তবে সলমনের আইনজীবী ইতিমধ্যেই আবেদন জানিয়েছেন তাঁর মক্কেলকে যেন বিদেশে যাওয়ার ছাড়পত্র দেওয়া হয়। তবে সেখানেও বাধা দেন সরকারি পক্ষের আইনজীবী।

১৯৯৮ সালের এই মামলা আজও বিপাকে ফেলে রেখেছে সলমন খান কে। আর হটাতই এমন ঘোষণা একেবারেই মেনে নিতে পারছে না খান পরিবার। তবে এই বিষয়ে এখন ও মুখ খুলতে দেখা যায়নি ভাইজানকে।

প্রসঙ্গত, কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী দুলানি ১৯৯৮-এ ঘটনার দিন সলমনের গাড়ি চালাচ্ছিলেন। তাঁর বয়ানের ওপর ভিত্তি করেই গড়ে ওঠে গোটা মামলা। বয়ানে দুলানি জানান, সলমনই শিকার করেন চিঙ্কারা। কিন্তু তারপর আদালত থেকে তাঁকে বারবার সমন পাঠালেও তিনি অনুপস্থিত থাকেন। মামলার শুনানি চলাকালীনও আদালতে দেখা যায়নি তাঁকে।

- Advertisement -

শেষে মূলত তাঁর অনুপস্থিতির কথা বিবেচনা করেই রাজস্থান হাইকোর্ট সলমনকে কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়৷ ২০ বছর আগে রাজস্থানের কঙ্কনি গ্রামে কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেছিলেন সলমন খান। মামলাটি ট্রায়াল কোর্টে পৌঁছায়। তারপর সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এই মুহূর্তে যোধপুর আদালতে মামলা চলছে ৷

Advertisement
-----