সলমনের নতুন ঠিকানায় অবাক সাইবারবাসী

মুম্বই : শিরোনাম পড়ে নিশ্চয়ই ভাবছেন যে তিনি নিজের বাড়ি ‘গ্যালাক্সি’ ছেড়ে অন্য কোথাও শিফট করেছেন৷ বা নতুন বাড়ি কিনেছেন৷ কেনেননি বা শিফটও করেননি৷ শুধু কয়েকদিনের জন্য তাঁর ঠিকানা বদলে গিয়েছে৷ দিন রাত এখন একটি ছোট্ট বাড়িতেই কাটাচ্ছেন সলমন৷ অবশ্য ছোট বাড়ি বললে ভুল হবে৷ ছবি দেখলে কোনও পাঁচতারা হোটেলের মাস্টার বেডরুম বলে ভুল ভেবে বসবেন আপনিও৷ আসলে এটি একটি ভ্যানিটি ভ্যান৷ যা কোনও মাস্টার বেডরুমের চেয়ে কোনও অংশে কম নয়৷ মালতায় শ্যুটিং করাকালীন এই ভ্যানিটি ভ্যানটিই নতুন ঠিকানা হয়ে উঠেছে ভাইজানের৷

‘কুছ রিশতে জমিন হে হোতা হে, অর কুছ খুন সে। মেরে পাস দোনো হে!’ সম্পর্কে নতুন অ্যাখান নিয়ে স্বাধীনতাদিবসে সামনে এসেছে ‘ভরত’-এর মোশন পোস্টার। যেখানে তার ফ্রেমে ফুটে উঠেছে ভারতের মানচিত্র। সেই সঙ্গে ভারতের সঙ্গে কিছু মানুষের সম্পর্কের কথা।

- Advertisement -

স্টান্ট ও ট্রাপিজের খেলা নিয়ে তৈরি ‘ভরত’। ২০১৪ সালে কোরিয়ার ব্লকবাস্টার মুভি ‘ওদে টু মাই ফাদার’ ছবির রিমেক। তবে ছবির পরিচালক আলি আব্বাস জাফর জানিয়েছেন, রাজ কাপুরের ছবি ‘মেরা নাম জোকার’ থেকে অনুপ্রাণিত ‘ভারত’। ভারতীয়-রাশিয়ান সার্কাসের কথা মাথায় রেখেই তৈরি হয়েছে ছবিটি। স্ট্রাপিজ ও রোপ স্টান্টের মিক্স স্টান্ট দেখা যাবে ছবিতে। তাইতো প্রথম লুকের ছবিতে সলমনকে স্ট্যান্টম্যান হিসেবে দেখানো হয়েছে। এ ছবিতে প্রায় ৬০ বছর সময়কালকে তুলে ধরা হয়েছে। সলমনের মোট পাঁচটি লুক এই ছবিতে দেখা যাবে। থাকছে দিশা পাটানি।

কিছুদিন আগে ট্যুইটার হ্যান্ডেলে ‘ভরত’ প্রথম লুক প্রকাশ করেছেন ছবির পরিচালক আলি আব্বাস জাফর। ছবিতে আগুনের রিংয়ের মাঝে বাইক নিয়ে দেখা যাচ্ছে ভাইজানকে। নীচে ক্যাপশনে লেখা “Ring of fire & Bharat”। এদিকে পোস্টার মুক্তির কিছুদিন পর, পরিচালক আলি আব্বাস ট্যুইট করে প্রিয়াঙ্কার ‘ভরত’ থেকে সড়ে যাওয়ার খবর দেন। কারণ হিসাবে জানান এটা নায়িকার” এর কারণ ‘নিক অফ টাইম’। আর তাই নতুন জীবনের জন্য টিম ‘ভরত’-এর তরফ থেকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। তবে প্রিয়াঙ্কার এমন সিদ্ধান্ত মোটেও ভাল ভাবে নেননি ডেভিল। বিশেষ সূত্রের খবর, অভিনেত্রীর ওপর সলমন প্রচণ্ড রেগে গিয়েছেন। আর কখনও প্রিয়ঙ্কার সঙ্গে কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

Advertisement
---