টাকা দিয়ে সল্টলেকে জমি হস্তান্তর খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

নয়াদিল্লি:   সল্টলেকের জমি হস্তান্তরে সরকারের টাকা আদায়ের সিদ্ধান্ত আগেই খারিজ করে ছিল হাইকোর্ট৷ এবার তা খারিজ হল সুপ্রীম কোর্টে৷ চলতি বছরের মার্চ মাসে কলকাতা হাইকোর্টে বিচারপতি শুভ্রকমল মুখোপাধ্যায় ও বিচারপতি ইন্দ্রজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ সল্টলেকে জমি হস্তান্তরের ক্ষেত্রে কাঠা পিছু পাঁচ লক্ষ টাকা আদায়ের সরকারি সিদ্ধান্ত খারিজ করে দিয়েছিল৷ তার আগে অবশ্য এই মামলায় সিঙ্গল বেঞ্চেও হেরে ছিল রাজ্য সরকার৷ হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের রায় প্রতিকূলে যাওয়ার পর সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে রাজ্য সরকার৷ কিন্তু এবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ও হতাশ করল রাজ্য সরকারকে৷

এই সংক্রান্ত আরও খবর

জমি হস্তান্তরে সল্টলেক পুরসভার নোটিস খারিজ হাইকোর্টে

- Advertisement DFP -

এক ক্লিকে জমির তথ্য দেবে সরকার

প্রসঙ্গত,মধ্যবিত্তের আবাসন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে সল্টলেকে উপনগরী তৈরি করা হয়েছিল৷ তখন জমি হস্তান্তরে রাশ টেনে আবাসিকদের লিজে জমি দিয়েছিল সরকার৷ শুধুমাত্র রক্তের সম্পর্কের মধ্যেই জমি হস্তান্তর করা যাবে বলে নিয়ম করে সরকার৷ তবে প্রায় দু’দশক আগে থেকেই সল্টলেকে জমি হস্তান্তরে অনিয়ম নিয়ে অভিযোগ উঠেছে ৷ বহু মানুষ সরকারের কাছ থেকে কম দামে পাওয়া জমি মোটা টাকায় বেচে দিচ্ছেন বলে শোরগোল ওঠে৷ প্রভাবশালী অনেকেরই নাম জড়ায় সেই অনিয়মে৷ আইনের ফাঁক গলে এমন হস্তান্তরে বিড়ম্বনা বাড়ে সরকারেরও৷ বাস্তব পরিস্থিতি মেনে বাম আমলে বাণিজ্যিক প্লটের জমি হস্তান্তরে নিয়ম কিছুটা শিথিল করা হয়৷ এর পর তৃণমূল ক্ষমতায় এসে ২০১২ -র ২৫ জুন নোটিফিকেশন করে কাঠা প্রতি পাঁচ লক্ষ টাকা সরকারকে দিয়ে জমি হস্তান্তরের অনুমতি দেওয়ার৷ সল্টলেকে জমির দু’রকমের লিজ দলিল রয়েছে৷ ক্লজ ১৭ এবং ক্লজ ২০ নম্বর লিজ দলিলে সল্টলেকের জমি আবাসিকদের দেওয়া হয়েছিল৷ ১৭ নম্বর লিজ দলিল অনুযায়ী কাঠা প্রতি পাঁচ লক্ষ টাকা করে সরকারকে দিয়ে জমি হস্তান্তরের অনুমতি দেয় রাজ্য৷ অথচ লিজ দলিলে এমন সুযোগ ছিল না৷

 

Advertisement
----
-----