বামেদের বিক্ষোভে রণক্ষেত্র সল্টলেক

ছবি: শশী ঘোষ

কলকাতা : বাম কর্মচারী সংগঠনের বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল সল্টলেকের বিকাশ ভবন চত্বর৷ ব্যারিকেড ভাঙাকে কেন্দ্র করে রাজ্য কো-অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যদের সঙ্গে কার্যত খণ্ডযুদ্ধ বেঁধে যায় পুলিশের সঙ্গে৷ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি৷ পুলিশের তরফে দাবি করা হয়েছে, বারবার শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের দাবি জানানো হয়৷ কিন্তু তা শোনেননি বিক্ষোভকারীরা৷ বরং পাল্টা হামলা চালানো হয় পুলিশকে উদ্দেশ্য করে৷ বিক্ষোভের জেরে এক পুলিশকর্মীর মাথা ফেটে যায় বলে দাবি করা হয়েছে৷ যদিও বিক্ষোভকারীদের দাবি, তাঁরা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভই করছিলেন৷ কিন্তু পুলিশ বাধা দেওয়াতেই উত্তেজনা ছড়ায়৷

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার ষষ্ঠ পে কমিশনের রিপোর্ট নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে জমা দেওয়া দাবিতে বিকাশ ভবন অভিযানে নামে বাম কর্মচারী সংগঠন রাজ্য কো-অর্ডিনেশন কমিটি৷ কমিশনের মেয়াদ পুনরায় এক বছর বৃদ্ধি করার প্রতিবাদে ও অবিলম্বে বেতন কমিশনের রিপোর্ট পেশ করার দাবিতে তাঁদের এই কর্মসূচি বলে সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছিল৷ তাদের দাবি, রাজ্য ও কেন্দ্রের ডিএ-র ফারাক ক্রমশ বেড়ে চলেছে৷ কেন্দ্র যখন সপ্তম বেতন কমিশন লাগু করে দিয়েছে, তখন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা বঞ্চিত হচ্ছেন বলে ওই সংগঠনের অভিযোগ৷

ছবি: শশী ঘোষ

তাই সল্টলেকের করুণাময়ী বাসস্ট্যান্ডের সামনে জমায়েত করেন সংগঠনের সদস্যরা৷ সেখান থেকে শুরু হয় মিছিল৷ কিন্তু কর্মসূচি ঘিরে সকাল থেকে তৎপর ছিল বিধাননগর কমিশনারেট পুলিশ৷ তারা শুরু থেকেই বিকাশভবন চত্বরে ব্যাপক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছিল৷ কিন্তু তার পরও দুপুর আড়াইটে নাগাদ গোলমাল ছড়ায়৷

- Advertisement -

পুলিশের দাবি, বিক্ষোভকারীদের ঠেকাতে বিকাশভবনের কিছুটা দূরে ব্যারিকেড করা হয়েছিল৷ কিন্তু সেই ব্যারিকেড ভেঙে দেয় বিক্ষোভকারীরা৷ তার পর মিছিল করে ঢুকে পড়ে বিকাশভবন চত্বরে৷ সেখানেও প্রচুর গোলমাল হয়৷ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে৷ পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশকে লাঠিও চালাতে বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি৷ যদিও বিক্ষোভকারীদের দাবি, বিনা প্ররোচনায় পুলিশ মিছিল আটকেছে৷ তাঁদের উপর লাঠি চালিয়েছে৷