ইসলামপুর: শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল স্কুলচত্বর৷ ঘটনায় এক পড়ুয়ার মৃত্যুও হয়৷ বৃহস্পতিবার উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর দ্বারিভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে৷

Advertisement

ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন৷ অভিযোগ, স্কুলে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে পথঅবরোধ কর্মসূচি নেয় পড়ুয়ারা৷ সেই অবরোধ জোর করে তুলতে গেলে শুরু হয় দু’পক্ষের ঝামেলা৷

আরও পড়ুন: ইসলামপুরের স্কুলে চলল গুলি, নিহত ছাত্র

পুলিশকে লক্ষ্য করে ইঁট, পাথর ছোঁড়া হয়। পুলিশও পাল্টা লাঠিচার্জ, রবারের গুলি ও টিয়ারগ্যাসের সেল ফাটিয়ে ছত্রভঙ্গ করে স্কুলের হাজার দু’য়েক আন্দোলনকারী ছাত্রছাত্রীকে৷ ক্রমেই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে৷ বিরাট পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে যায়৷ বসানো হয় পুলিশ পিকেট৷ এই ঘটনায় চার পুলিশ কর্মী-সহ দশজন আহত হন৷ গুলিবিদ্ধ হন রাজেশ সরকার (২৭) নামে দ্বারিভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ের এক প্রাক্তন ছাত্র৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, ইসলামপুর ব্লকের দ্বারিভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ে সম্প্রতি একজন উর্দু বিষয়ের শিক্ষক এবং একজন সংস্কৃতের শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে৷ অভিযোগ, এই স্কুলে নাকি উর্দু মাধ্যমের কোনও ছাত্র, ছাত্রীই নেই৷ অথচ বিদ্যালয়ে প্রয়োজন বাংলা শিক্ষকের৷ এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন পড়ুয়ারা৷

আরও পড়ুন: ঘুরতে ভালবাসেন? মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি

স্কুল লাগোয়া রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে তারা৷ ঘটনাস্থলে ইসলামপুর থানার বিশাল পুলিশবাহিনী পৌঁছলে আগুনে ঘি পড়ে৷ ছাত্রছাত্রীদের দাবি, এরআগে পথ অবরোধ আন্দোলনে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তাদের আশ্বাস দিয়েছিলেন উর্দু শিক্ষক বিদ্যালয়ে আনা হবে না। অথচ বৃহস্পতিবার উর্দু শিক্ষকরা কাজে যোগ দেন৷ ছাত্রছাত্রীরাও নিজেদের দাবিতে অনড় থেকে সাফ জানায়, কিছুতেই বিদ্যালয়ে উর্দু শিক্ষকদের যোগ দিতে দেবে না৷ এই নিয়েই এই শিক্ষাঙ্গন রণক্ষেত্রের রূপ নেয়৷

আরও পড়ুন: গ্যাংস্টার নাকি পুলিশ, শুক্রবারই পাওয়া যাবে শাকিবের আসল পরিচয়

----
--