স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: দ্বিতীয় বর্ষের বইমেলা বুধবার শুরু হল বাঁকুড়ার প্রত্যন্ত ইন্দাসে৷ এই মেলা চলবে ৪ মার্চ পর্যন্ত৷ মেলা উদ্বোধন করলেন বাংলাদেশের উপ-দুতাবাসের দুতালয় প্রধান বি.এম.জামাল হোসেন৷

এদিন মেলা উদ্বোধনে এসে তিনি বলেন, ‘‘আমি একটি দেশকে প্রতিনিধিত্ব করি৷ সেই দেশটির নাম বাংলাদেশ৷ আমি এমন একটি জাতিকে প্রতিনিধিত্ব করি যে জাতি যুদ্ধ করে তিরিশ লক্ষ শহিদ আর দুই লক্ষ মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে স্বাধীনতা লাভ করেছে৷ যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান৷ তবে সবচেয়ে বেশি গর্ববোধ হয় আমি একটি ভাষার ভিত্তিতে একটি দেশ গড়ে উঠেছিল৷ আর সেই দেশের নাম বাংলাদেশ৷ সেই ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য এই বাংলার ছেলেরা নিজেদের বুকের রক্ত দিয়ে ঢাকার রাজপথ রঞ্জিত করেছিলেন৷’’ তিনি আরও বলেন, বাঁকুড়ার প্রত্যন্ত ইন্দাসে এই বইমেলার আয়োজন যথেষ্ট প্রশংসার দাবি রাখে৷ উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান তিনি৷

ইন্দাস ব্লক প্রশাসন ও পঞ্চায়েত সমিতির উদ্যোগে বুধবার স্থানীয় হাই স্কুল মাঠে দ্বিতীয় বর্ষের বইমেলা শুরু হয়৷ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ উপ-দুতাবাসের দুতালয় প্রধান বি.এম.জামাল হোসেন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ভাষা আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব ডঃ ইমানুল হক, মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা, আনন্দ পুরস্কার প্রাপ্ত কবি সুধীর দত্ত প্রমুখ৷

বইমেলা কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এবার বইমেলায় কলকাতা ও রাজ্যের তিরিশটি প্রকাশনা সংস্থা যোগ দিয়েছে৷ একই সঙ্গে স্থানীয় কবি-সাহিত্যিক-ক্ষুদ্র পত্র পত্রিকা গুলিকেও বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে৷ তাঁদের জন্যও আলাদা স্টলের ব্যবস্থা করা হয়ছে৷

বইমেলা মঞ্চে প্রতিদিন থাকছে বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি আলোচনা সভা, কবি সম্মেলনও৷ বইমেলা কমিটির পক্ষ থেকে আরো জানানো হয়েছে, মালদার গম্ভীরা, নদীয়ার জীবন্ত স্ট্যাচু, শিশু বাউল শিল্পীদের অনুষ্ঠানের পাশাপাশি সঙ্গীতশিল্পী অরুন্ধুতি চৌধুরী, মনোময় ভট্টাচার্য্য, শুভমিতা, দেবারতী সোম, স্বপন সোম, শিবাজী চট্টোপাধ্যায়ের মত শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করবেন৷

এদিন উদ্বোধনী মঞ্চে ইন্দাসের বিডিও সুচেতনা দাস স্বাগত বলেন, ‘‘একটি বই আমাদের মধ্যে একটু একটু করে প্রেম, সহিষ্ণুতা, একাগ্রতা, কখনও-কখনও অনুশোচনা, সহমর্মিতা যন্ত্রণা, অভিমান, সুখ, দুঃখ এই অনুভূতি গুলোকে বোধহয় জাগিয়ে তুলতে পারে৷ মানসিক বিকাশের অন্যতম বই৷ আমাদের সমাজ যখন যন্ত্রনির্ভর হয়ে পড়ছে৷ তখন আমার মনে হয়েছে আজকের শিশু কিশোররা বই প্রাঙ্গনে হাঁটুক৷ শিশু-কিশোর-বড়দের সহ সকলের কথা ভেবে এখানে বইমেলা কথা ভাবা হয়েছিল৷ আজ এই মেলার মঞ্চে দাড়িয়ে মনে হচ্ছে সেই প্রচেষ্টা অনেকটাই স্বার্থক৷ আপনারা সবাই আসুন ইন্দাস বই মেলায়৷’’

----
--