ওয়াশিংটন: এক হাতে কোট, অন্য হাতে স্যুটকেস নিয়ে মার্কিন বিমানবন্দরে হেঁটে যাচ্ছেন এক ব্যক্তি৷ বিমানবন্দরের সিকিউরিটি চেকিং এর পর গটগট করে এসকেলেটরের দিকে চলে যাচ্ছেন তিনি৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও এখন ভাইরাল৷ মজাদার নানা কমেন্টে ভরে গিয়েছে ইনবক্স৷

হঠাৎ এই ব্যক্তিকে নিয়ে মাতামাতি কেন সোশ্যাল মিডিয়ায়? ভিডিওতে দেখানো সেই ব্যক্তির পরিচয় জানলে অবাক হবেন পাঠকও৷ ওই ব্যক্তি আসলে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাক্কান আব্বাসি৷ সম্প্রতি আমেরিকায় যান তিনি৷ এক দেশের রাষ্ট্রপ্রধান অন্য দেশে গেলে বিমানবন্দরে তাদের যে ধরনের অভ্যর্থনা দেওয়া হয় তার শিকিভাগও জোটেনি আব্বাসির৷ মার্কিন প্রশাসনের কেউই তাঁকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে যাননি৷ অন্তত ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে সেরকম কাউকে চোখে দেখা যায়নি৷ আর পাঁচ জন সাধারণ যাত্রীর মতোই ব্যবহার পেলেন বিমানবন্দরে৷

এদিকে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে এই ভাবে অপদস্থ হতে দেখে ক্ষোভে ফুঁসছে পাক জনতা৷ সেদেশের একটি টিভি চ্যানেলে ভিডিওটি পোস্ট করে দাবি করা হয়েছে, মার্কিন বিমানবন্দরে অপমান করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাক্কান আব্বাসিকে৷ যদিও অপর মহল থেকে ভিডিওটির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে৷ ভিডিওর ছবিতে দেখানো ব্যক্তি যে পাক প্রধানমন্ত্রী তার কোন নিশ্চয়তা মেলেনি৷

তবে ঘটনাটি যদি সত্যি হয় তাহলে এর বিরূপ প্রভাব কিছুটা হলেও আমেরিকা ও পাকিস্তানের সম্পর্কে পড়তে পারে বলে অভিমত রাজনৈতিক মহলের৷ এমনটিতেই ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হয়ে আসার পর দুই দেশের সম্পর্কে শীতলতা তৈরি হয়েছে৷

পাকিস্তান নাগরিকদের ভিসার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার কথা চিন্তা ভাবনা করছে ট্রাম্প প্রশাসন৷ সেই নিয়ে চাপে রয়েছে পাকিস্তান৷ মাঝে মধ্যেই পাকিস্তানকে জঙ্গিদের মদত না যোগানোর হুঁশিয়ারিও দেন তিনি৷ জঙ্গিদের মদত দেওয়া বন্ধ না করলে পাকিস্তানকে আর্থিক অনুদান বন্ধ করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ট্রাম্প৷