দলিতেই ভরসা, আম্বেদকর সেন্টারে বৈঠকে ব্যস্ত অমিত শাহ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মোদী সরকারের জনমুখী কর্মসূচীতে কতটা মজল সারা দেশের জনতা? সারা দেশের দলিত সমাজ কী বিজেপিকে আপন মনে করে? নাকি নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহ জুটি দেশের নিন্মবর্গ ও দলিতদের মনে সেভাবে জায়গা করে উঠতে পারেনি? এইসব প্রশ্নগুলির উত্তর খুঁজবে বিজেপির জাতীয় কার্যনির্বাহকদের নিয়ে বৈঠক৷

জাতীয় কার্যনির্বাহকদের নিয়ে বৈঠকের মূল লক্ষ যে দেশের দলিতদের আস্থা অর্জন করা, তা আম্বেদকর ইন্টারন্যাশনাল সেন্টারে ওই বৈঠক আয়োজন করেই বুঝিয়ে দিয়েছে বিজেপি৷ এদিন সকালে ড. বি আর আম্বেদকরের মূর্তিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে বৈঠকে ভাষণ দিতে যান বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷

- Advertisement -

পড়ুন: সমাজের উন্নতিতে হিন্দুদের একত্রিত হওয়ার বার্তা আরএসএস প্রধানের

উল্লেখ্য, সারা ভারতজুড়েই দলিতদের ঘরে ঘরে পৌঁছে, পাত পেড়ে খেয়ে প্রচার চালিয়েছেন বিজেপি নেতারা৷ বাদ যায়নি পশ্চিমবঙ্গও৷ রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বও দিকে দিকে দলিতবাড়িতে আতিথ্য গ্রহণ করেছেন৷

সম্প্রতি জাতীয় নাগরিকপঞ্জীকরণ নিয়ে উঠেপড়ে লেগেছে বিজেপি৷ হিন্দুত্ব ‘অ্যাজেন্ডা’কে সামনে রেখে দলিত-নিন্মবর্গের ভোট চাইছে পার্টি৷ সেক্ষেত্রে সংসদে বিল এনে তফশিলি জাতি ও উপজাতি আইনকে আরও মজবুত করতে চাইছে গেরুয়া শিবির৷

উত্তরপ্রদেশে ভাল ফল করতে হলে দলিতদের সমর্থন যে কতটা প্রয়োজন তা ভালো করেই জানে মোদী-শাহের পার্টি৷ সমাজবাদি পার্টি বা বহুজন সমাজ পার্টিকে কোনও সুযোগই দিতে রাজি নয় তাঁরা৷ সেক্ষেত্রে দলিত-লাইনই ২০১৯ সালে তাঁদের দিল্লির ক্ষমতার দিকে অনেকখানি এগিয়ে দেবে বলে মনে করছেন মোদী-শাহ৷

Advertisement
---