জেলাশাসকের চাকরি ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পথে তরুণ আমলা

রায়পুর: বয়স মাত্র ৩৭৷ ছত্তিশগড় রায়পুরের জেলা শাসকের দায়িত্বে ছিলেন৷ কিন্তু দেশ ও জন্মভূমির জন্য আরও ভালো কাজ করার আশায় ছাড়লেন হাইপ্রোফাইল সরকারি চাকরি৷ সূত্রের খবর প্রাক্তন এই আইএএস অফিসার ও পি চৌধুরী বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন৷ এমনকী আগামী বিধানসভা ভোটে তরুণ ভোটারদের বিজেপিতে টানার মুখ হয়ে উঠতে চলেছেন৷

যদিও বিজেপির তরফে সরকারি ভাবে ও পি চৌধুরীর দলে যোগ দেওয়া নিয়ে কোনও বিবৃতি জারি করা হয়নি৷ কিন্তু ২০০৫ সালের আইএএস ব্যাচের অফিসার ও পি চৌধুরীর প্রোফাইল এমনই যে তাঁকে দলে নিলে রাজনৈতিক ভাবে ফায়দা তুলতে পারবে বিজেপি৷ এমনই মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷

তাদের ব্যাখ্যা, প্রথমত তিনি ওবিসি সম্প্রদায়ভুক্ত৷ এমন এক সম্প্রদায় থেকে উঠে এসে ও পির আইএএস হওয়াকে ফেরি করে নিম্নবর্গের মন জয় করতে পারবে বিজেপি৷ তাছাড়া তরুণ ভোটারদের বিজেপির দিকে আকৃষ্ট করা যাবে৷ তৃতীয়ত স্বল্প সময়ের কর্মজীবনে কাজের ছাপ রেখে গিয়েছেন৷ ২০১১-১২ সালে মাও অধ্যুষিত দান্তেওয়াড়াতে শিক্ষার প্রসারে ভালো কাজের জন্য প্রাইম মিনিস্টার অ্যাওয়ার্ডে পুরস্কৃত করা হয়৷ ও পি নিজেও জানাননি তিনি কোন দলে নাম লেখাবেন৷ তবে রাজনীতিতে আসছেন এটা নিশ্চিত৷

- Advertisement -

ফেসবুক পেজে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করে তিনি জানান, ১৩ বছরের কেরিয়ারে জীবনে অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছি৷ বায়ানা গ্রাম থেকে রায়পুরের কালেক্টর হয়ে ওঠার পদে প্রতি মুহূর্তে সেই সব চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে হয়েছে৷ কিন্তু এখন পুরো সময় জন্মভূমিকে দিতে চান৷ গ্রামের মানুষদের উন্নয়নের কাজে নিজেকে উৎস্বর্গ করতে চান৷ তাই আইএএস থেকে ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত৷

Advertisement ---
-----