বিজেপির আবার গুজরাত জয়ের ৭টি কারণ

নয়াদিল্লি: গুজরাতে ফের জিতল বিজেপি৷ আবারও সেখানে তৈরি হতে চলেছে বিজেপির সরকার৷ টানা ২২ বছর পর গুজরাতের ক্ষমতার বাইরে কংগ্রেস৷ এবার রাহুল গান্ধী শুরু থেকেই অনেক চেষ্টা করেছিলেন৷ কিন্তু শেষপর্যন্ত অধরা রয়ে গেল তাঁদের জয়৷ রাহুলের সেই চেষ্টা কেন কাজে এল না? কোন পাঁচটা কারণে নরেন্দ্র মোদী রাহুলকে কিস্তিমাত করলেন?

নরেন্দ্র মোদী: গুজরাতে বিজেপির তুরুপের অবশ্যই ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ তাঁকে ঘিরেই শুরু থেকে প্রচারের পরিকল্পনা করেছিল বিজেপি৷ মুখ্যমন্ত্রী অন্য কেউ হলেও তাঁকে সামনে রেখেই আগামিদিনে গুজরাতবাসীকে উন্নয়নের স্বপ্ন দেখিয়েছে বিজেপি৷ আর সেই স্বপ্নেই শেষপর্যন্ত বুঁদ হয়েছেন গুজরাতবাসী৷ ওই রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্বের উপর ক্ষোভ থাকলেও মোদীর উপর এখনও ভরসা যে অটুট, তার প্রমাণ মিলল এদিন৷

আরও পড়ুন: LIVE গুজরাতে কোনওরকমে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেল বিজেপি

- Advertisement -

সংগঠন: গুজরাতে বিজেপির সংগঠনও এই জয়ে একটা বড় ফ্যাক্টর হয়েছে৷ আর এই সংগঠনের উপর ভর করেই মূলত মোদীকে প্রচারে প্রজেক্ট করা হয়েছিল৷ এর জন্য কৃতিত্ব অবশ্যই দিতে হবে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷ কংগ্রেস ও অন্যান্যদের কড়া চ্যালেঞ্জকে মোকাবিলা করতে পেরেছিলেন বলেই এদিন গুজরাতে ক্ষমতা ধরে রাখতে পেরেছে বিজেপি৷ সংগঠন সাজানোর সেই কাজে কংগ্রেসকে দুর্বল করে দেওয়াও একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে৷

প্রচারের গভীরতা: এবার বিজেপি গুজরাতের আরও গভীরে গিয়ে প্রচার করেছে৷ বুথস্তরের কর্মীরা যেমন প্রচার করেছেন৷ দলের রাজ্য ও জাতীয়স্তরের নেতারাও প্রচারে গিয়েছেন৷ সেই প্রচারপর্বের অগ্রভাগে ছিলেন নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহ৷ বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি ৩১টি সভা করেছেন৷ গোটা রাজ্যে প্রায় ৬ হাজার কিলোমিটার ঘুরেছেন৷

আরও পড়ুন: দেবভূমিতে পরাজিত বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী

মতাদর্শ: ক্ষোভ থাকলেও বিজেপির মতাদর্শের উপর এখনও ভরসা রয়েছে গুজরাতের বাসিন্দারা৷ পতিদার, অনগ্রসর শ্রেণির ভোটাররা ক্ষুব্ধ৷ কিন্তু তাঁরা বিজেপির মতাদর্শ থেকে সরে আসতে পারেননি৷ তাই এসেছে জয়৷

সুশাসন: গুজরাতের গ্রামাঞ্চল, কৃষক-সহ সমাজের একাধিক স্তরে মানুষের ক্ষোভ ছিল৷ কিন্তু গত দুই দশকে বিজেপির সরকারের কাজ৷ বিশেষ করে যে সময় নরেন্দ্র মোদী গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, সেই সময় কী কী কাজ হয়েছে, সেগুলির উপর ভিত্তি করেই মানুষের ভরসা এখনও অটুট রয়েছে৷

আরও পড়ুন: মোদী থেকে রাহুল, ফল দেখে কী বললেন নেতারা?

ব্যবসায়িক মহল: জিএসটির কারণে গুজরাতের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে৷ কিন্তু সেই ক্ষোভের থেকেই বড় হয়ে দাঁড়িয়েছে আতঙ্ক৷ কারণ, বিজেপিকে ভোট না দিয়ে কংগ্রেসকে ভোট দিলে গুজরাতের ব্যবসায়ীরা কতটা সুরক্ষিত থাকবে, তা নিয়েও একটা দ্বিধায় ছিলেন তাঁরা৷ সেই কারণেই সম্ভবত গুজরাতের ব্যবসায়ীরা বিজেপির পক্ষেই রায় দিয়েছেন৷

গুজরাতি সম্মান: গুজরাতের সম্মান সবচেয়ে আগে৷ সেই বিষয়টিই সুচারুভাবে বিজেপির তরফে গুজরাত বিধানসভার ভোটে বারবার তুলে ধরা হয়েছে৷ নরেন্দ্র মোদী গুজরাতের বাসিন্দা৷ যতই তিনি প্রধানমন্ত্রী হোন, বিজেপি নেতা হিসেবে গুজরাতের সম্মানরক্ষাই তাঁর মূল লক্ষ্য বলে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে বিজেপি৷ একই সঙ্গে রাহুল গান্ধীকেও গুজরাতের বাইরের লোক হিসেবেও তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে বিজেপি৷

Advertisement
---