হায়দরাবাদ: সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা ব়্যাকেট হাতে কোর্টে নামতে পারেন! হ্যাঁ তাঁর নাম যদি সানিয়া মির্জা হয়, তাহলে সম্ভব৷ দীর্ঘদিন কোর্ট থেকে দূরে ছিলেন৷ কিন্তু আর থাকতে পারলে না৷ কোর্ট ও ব়্যাকেটের হাতছানি উপেক্ষা করতে পারলেন না ভারতীয় টেনিস সুন্দরী৷

অক্টোবরে মা হতে চলা সানিয়াকে দেখা গেল টেনিস ব়্যাকেট হাতে কোর্টে বল মারতে৷ বোন আনম মির্জার সঙ্গে রীতিমত টেনিস খেললেন হায়দরাবাদি৷ এবার পূজোর সময় সানিয়া-শোয়েবের ঘরে আসতে চলেছে নতুন অতীথি৷ সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা বেশিরভাগ মহিলা যখন বিশ্রামে থাকেন, তখন ভারতীয় টেনিস সুন্দরী ব়্যাকেট হাতে কোর্টে নেমে পড়লেন৷

১২ এপ্রিল, ২০১০৷ পাক ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের সঙ্গে বিয়ে হয় হায়দরাবাদি টেনিস সুন্দরীর৷ আট বছর পর মা হতে চলেছেন সানিয়া৷ হাঁটুর চোটের গত বছর থেকে কোর্ট থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সানিয়া৷ অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর অবশ্য পুরোপুরি বিশ্রাম নেন ভারতীয় টেনিস তারকা৷ অন্তঃসত্ত্বার বিভিন্ন ছবি নিজের ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন হায়দরাবাদি৷ ব়্যাকেট হাতে কোর্টে বল মারার ভিডিও পোস্ট করে সানিয়া লিখেছেন, ‘টোল্ড ইউ…ক্যান নট কিপ মি অ্যাওয়ে..আই নিড সাম উইল টু মুভ থ্রু৷’

কয়েকদিন আগে সানিয়ার বোন আনাম তাঁদের দু’ বোনের টেনিস খেলার ভিডিও পোস্ট করেন৷ কোর্টের পাশে দাঁড়িয়ে দুই মেয়ের টেনিস খেলা দেখছিলেন বাবা ইমরান মির্জা৷ ভিডিও নিচে ক্যাপশনে লেখা, গেটিং মম-টু-বি টু হিট এ ফিউ বল৷’

দু’দিন সানিয়া গোলাপি গাউন পরে টেনিস কোর্টের নেটে পাশে ছবি তুলে তা ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন সানিয়া৷ যেখানে ক্যাপশন দিয়ে তিনি লেখেন, ‘ইউ ক্যান টেক দ্য প্লেয়ার অফ দ্য টেনিস কোর্ট ফর এ ওয়াইল..বাট ইউ ক্যান নট টেক টেনিস আউট অফ দ্য টেনিস প্লেয়ার এভার৷’

সানিয়ার ইনস্টাগ্রাম থেকে নেওয়া ছবি৷

গত বছর হাঁটুর অস্ত্রোপচার হয় ছ’টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিকন সানিয়ার৷ ফলে তাঁর কেরিয়ার যথেষ্ট চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে৷ তবে এখনও দেশের হয়ে অলিম্পিকে পদক জেতার স্বপ্ন দেখেন সানিয়া৷ ২০২০ টোকিও অলিম্পিকে দেশের হয়ে পদক জিততে চান হায়দরাবাদি টেনিস সুন্দরী৷ হাঁটুর অস্ত্রোপচারের পর তিনি জানিয়েছিলেন, ‘এটা সময়ের অপেক্ষা৷ হাঁটুর চোটের জন্য আমি কোর্ট থেকে দূরে সরে বাধ্য হয়েছি৷ কিন্তু আমার আবার ভালো সময় আসবে৷ তবে এই সময়টা আমি পরিবারের সঙ্গে শেয়ার করতে চাই৷ এটা আমার জীবনের নতুন অধ্যায়৷’

----
--