অ্যাপের মাধ্যমে রমরমিয়ে চলছিল মধুচক্র! অবশেষে চক্র ফাঁস

ফাইল ছবি

রাঁচি: মোবাইলের মাধ্যমে মধুচক্র চলত৷ বকলমে ছিল অ্যাপের মাধ্যমে রুম বুকিং সার্ভিসের হাতছানি৷ ঘর ভাড়া দেওয়ার নামে মোবাইল অ্যাপের সাহায্যে এই মধুচক্র চালানো হত বলে খবর৷

এখানেই শেষ নয়, এই মধুচক্র চলত একটি আবাসনের মধ্যে, ঘনজনবসতিপূর্ণ এলাকায়৷ ওই হাউজিং সোসাইটির বাসিন্দারা পুলিশের কাছে অভিযোগ জানায়৷ অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ৷ চার দম্পতিকে গ্রেফতার করা হয়৷ এদের সঙ্গে আরও এক ব্যক্তি ছিল৷ তাকেও গ্রেফতার করা হয়েছে৷
বেশ কিছু আপত্তিকর জিনিস উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ ওই ফ্ল্যাট থেকেই মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে মধুচক্র চলত বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ ঘর ভাড়া দেওয়ার নামে গোপনে মধু চক্র চালানো হত৷

রাঁচির বৃন্দা প্যালেস সোসাইটিতে এই মধুচক্র চালানোর অভিযোগ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ ধৃতদের প্রত্যেকের বয়স ২০-২৫ বছরের মধ্যে৷ এই বৃন্দা কমপ্লেক্সের মধ্যে বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহৃত এলাকা ব্যবহার করত অভিযুক্তরা বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

- Advertisement -

কমপ্লেক্সেই এক ব্যক্তির হোটেলের ব্যবসা ছিল বলে খবর৷ সেই ব্যক্তিই ওই বাণিজ্যিক এলাকাটি ব্যবহার করত৷ ঘর ভাড়া দেওয়া হত অবিবাহিত যুবক যুবতীদের৷ এজন্য সরাসরি ওখানে না গিয়ে, মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ঘর ভাড়া করা যেত৷

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ প্রায় দুমাস ধরে ওখানে নিত্যনতুন অল্পবয়েসী ছেলে মেয়েদের সন্দেহজনক গতিবিধি নজরে আসছিল তাদের৷ প্রথমে না বুঝতে পারলেও, পরে একটি ব্যানার টাঙানো হয়৷ ঘর ভাড়া দেওয়ার কথা উল্লেখ ছিল সেখানে৷ তারপর বাসিন্দারা পুলিশে অভিযোগ করেন৷

Advertisement ---
-----