কাঁথি: ফের স্কুলে শ্লীলতাহানির অভিযোগ৷ এবার ঘটনাস্থল পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরের একটি স্কুল৷ এই ঘটনা ঘিরে বৃহস্পতিবার হইচই পড়ে যায় মনোহরপুর বান্ধব উচ্চমাধ্যমিক স্কুল চত্বরে৷ অভিযোগ, পড়া না পারায় শাসনের নামে ষষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করেন এক শিক্ষক৷ অভিযোগের আঙুল স্কুলেরই এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে ঘিরে বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকে উত্তাল হয় স্কুল চত্বর৷

আরও পড়ুন: #MeToo-এর জেরে বন্ধ হল অভিজিতের আমেরিকার পুজো স্পেশাল শো

Advertisement

অভিযোগকারী ছাত্রীর পরিবারের লোকেদের পাশাপাশি অন্যান্য অভিভাবকরাও স্কুল ঘেরাও করে সামিল হন অবস্থান বিক্ষোভে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে তাদের ঘিরেও অভিযুক্ত শিক্ষক কাঞ্চন বেরার শাস্তির দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা৷ পরে স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিষ্ণুপদ ঘোষাল আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্ত শিক্ষককে স্কুলে হাজির করানো-সহ তাঁর বিরুদ্ধে আইনী পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দিলে শান্ত হন বিক্ষোভকারীরা৷

কাঁথির অতিরিক্ত পুলিশসুপার (গ্রামীণ) ইন্দ্রজিৎ বসু বলেন, ‘‘আমরা ওই ছাত্রীর মা, বাবাকে ভগবানপুর থানায় অভিযোগ জানাতে বলেছি। অভিযোগ পেলেই আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব৷’’ অভিযোগ, বুধবার দুপুর নাগাদ অভিযুক্ত শিক্ষক ষষ্ঠ শ্রেণীতে ইতিহাস পড়াচ্ছিলেন। পড়া না পারায় এক ছাত্রীর সঙ্গে অভব্য আচরণ করেন তিনি৷ বিকেলে স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফিরে কান্নাকাটি শুরু করে দেয় ওই ছাত্রী। ঘটনা শোনার পর এদিন বিকেলেই ছাত্রীকে নিয়ে স্কুলে যান পরিবারের লোকেরা।

প্রধান শিক্ষকের কাছে অভিযোগ জানান তাঁরা। বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান শিক্ষক ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে আসেন। এরই মধ্যে ঘটনার খবর চাউর হলে অন্যান্য অভিভাবকরাও গিয়ে হাজির হন নিগৃহীতা ছাত্রীর বাড়িতে। দুপুরে তাঁদের সঙ্গে নিয়ে স্কুলে হাজির হন ছাত্রীর পরিবারের লোকেরা। শুরু হয় অবস্থান বিক্ষোভ।

আরও পড়ুন: মাঝপথে চলন্ত ট্রেনেই মৃত্যু ক্যান্সার রোগিণীর

ছাত্রীর বাবা বলেন, ‘‘ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে এর আগে অন্যান্য ছাত্রীদের সঙ্গে অসভ্যতার অভিযোগ উঠলেও প্রভাব খাটিয়ে আগের সমস্ত কুকীর্তি ধামাচাপা দিয়েছে। কিন্তু নিজেকে বদলাননি৷ স্কুল কর্তৃপক্ষ অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণের কথাও জানিয়েছে। তা না হলে আমরাই অভিযোগ জানাব পুলিশে৷’’

https://youtu.be/Xw8rwpOe6lw

----
--