সোনাগাছিতে মহিলার গলা কেটে খুন

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সোনাগাছিতে এক মহিলাকে গলা কেটে খুনের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে৷ বৃহস্পতিবার সকালে সোনাগাছি এলাকায় দুর্গাচরণ মিত্র লেনে একটি বাড়ির তিনতলা থেকে সীমা (২৫) নামে ওই মহিলার রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে বড়তলা থানার পুলিশ৷ ঘটনাস্থলে গিয়ে ডিসি (নর্থ) শুভঙ্কর সিনহা সরকার জানিয়েছেন, গলায় ধারালো অস্ত্রের দাগ রয়েছে৷ মৃত মহিলা গত পাঁচ মাস ধরে এই বাড়িতে ছিলেন৷ কী কারণে খুন করা হয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

আরও পড়ুন : ক্লাস নাইনের পড়ুয়াও ভাড়ায় খোঁজে সোনাগাছির ঘর!

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, সীমা মূলত বাংলাদেশের বাসিন্দা৷ ঘটনার দু’দিন আগে থেকে তাঁকে এলাকায় দেখা যাচ্ছিল না৷ ওই বাড়ির অন্য এক বাসিন্দা পুলিশকে জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে সীমার ঘর থেকে চিৎকার-চেচামেচির শব্দ শোনা যায়৷ তারপর থেকে দরজা বাইরে থেকে বন্ধ থাকায় প্রতিবেশীরা ভেবেছিলেন, তিনি ঘরে নেই৷ এদিন সকালে সীমার বাড়িওয়ালার ফোনে একটি নম্বর থেকে ফোন করে খুনের কথা জানানো হয়৷ তখন প্রতিবেশীরা তাঁর ঘরের জানালা দিয়ে উঁকি মেরে দেখেন, মেঝেতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন সীমা৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন : বি.এ.-ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্রীও সোনাগাছির যৌনকর্মী!

তারপর পুলিশ এসে দরজা ভেঙে মৃতদেহ উদ্ধার করে৷ স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এক ফল ব্যবসায়ী নিয়মিত সীমার বাড়িতে যাতায়াত করত৷ সেই খুনের ঘটনায় যুক্ত বলে অভিযোগ তাঁদের৷ বড়তলা থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে৷

আরও পড়ুন : বাংলা-বাজার জুড়ে জিগোলোর রমরমা

 

Advertisement
---