মুম্বই: ফের মোদীর উপর আস্থা রেখে লাফ দিয়ে বাড়তে দেখা গেল শেয়ারসূচককে ৷ গত দিনের তুলনায় বুধবার সেনসেক্সের উত্থান হল ৬২৯ পয়েন্ট পাশাপাশি নিফটিও বেড়েছে ১৮৮ পয়েন্ট৷

মঙ্গলবার পাঁচ রাজ্যের ভোটের ফলাফল প্রকাশের আগের দিন সোমবারে শেয়ারবাজারে ধস নেমেছিল৷ ওইদিন সেনসেক্স নেমে গিয়েছিল ৭০০ পয়েন্ট৷ শুধু তাই নয়, ওই দিন আবার রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর উর্জিত প্যাটেল পদত্যাগ করেছেন৷ অর্থাৎ ফল প্রকাশের আগেই অর্থনৈতিক কারণে রীতিমতো চাপে ছিল মোদী সরকার। এমন পরিস্থিতিতে ফল প্রকাশের দিন সকালবেলা রীতিমতো নেমে যায় শেয়ারসূচক৷

পড়ুন: সচিন নাকি গেহলট, মুখ্যমন্ত্রী বাছতে আজ বৈঠকে কংগ্রেস

মনে করা হচ্ছিল মোদী সরকার চাপে থাকায় তারই প্রতিফলন পড়েছে বাজারে৷ কিন্তু বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শেয়ারসূচক ঘুরে দাড়িয়েছিল৷ আর বুধবার দেখা গেল বড় লাফ দিয়ে সেনসেক্স নিফটিকে উঠতে৷

এদিনে প্রায় ২ শতাংশ বৃদ্ধি ঘটেছে সূচকের৷ দিনের শেষে সেনসেক্স ৬২৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৩৫,৭৭৯ পয়েন্টে এবং নিফটি ১৮৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০,৭৩৮ পয়েন্টে৷যা গতকালই রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে শক্তিকান্ত দাসের নাম ঘোষণা হয়েছিল৷

পড়ুন: 7th pay commission: বড়সড় খুশির খবর সরকারী কর্মচারীদের জন্য

এদিন তিনি দায়িত্ব ভার গ্রহণ করেন৷ ফলে বিনিয়োগকারীরা আশা করেছে নতুন গভর্নর বাজারকে চাঙ্গা করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে৷ এদিন শেয়ার বাজারের উত্থানের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিশেষত ব্যাংকের একটা ভূমিকা ছিল৷ কারণ ব্যাংকগুলির শেয়ারের দাম রীতিমতো বাড়তে দেখা গিয়েছে৷

বাজার বিশেষজ্ঞদের ধারণা, বিজেপি রাজস্থান ছত্তিশগঢ়, মধ্যপ্রদেশ তিনটি রাজ্যে কংগ্রেসের কাছে পরাজিত হলেও বিনিয়োগকারীরা মোদী উপরই ভরসা রাখছে ৷ প্রতিষ্ঠান বিরোধী ভোটের ফলে এমনটা হয়েছে ফলে তাই বাজারে লগ্নিকারীরা এই বিষয়টিকে তেমন গুরুত্ব দিতে চায়নি৷ তারা ২০১৯ সালে মোদী ফিরছেন এমনটাই আশা করছেন কারণ অন্তত বাজারে বিনিয়োগকারীদের সক্রিয়তা দেখে তেমনটাই মনে হচ্ছে৷