ইসলামাবাদ: দুর্নীতি মামলা আগেই ছিল, এবার নওয়াজ ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে আরও ২টি মামলা দায়ের হল৷ জেলে এক রাত কাটতে না কাটতেই ২টি মামলার মুখে পড়লেন নওয়াজ, মরিয়ম৷ পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন শাখা NAB-র দুটি মামলায় ট্রায়ালের মুখে পড়তে পারেন নওয়াজের পরিবার৷

আরও পড়ুন- শুধুমাত্র জেলে যাওয়ার জন্যই কি দেশে ফিরলেন নওয়াজ?

NAB সূত্রে খবর, জেলে বসেই এই ট্রায়ালে পড়বেন নওয়াজ শরিফ৷ এর আগেই ২টি আর্থিক দুর্নীতির মামলা নওয়াজ শরিফ ও তাঁর মেয়ে মরিয়মের বিরুদ্ধে ছিল৷

দুর্নীতি মামলায় শরিফের ১০ বছর, মেয়ে মরিয়মকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে৷ এবার আরও ২টি দুর্নীতি মামলায় নাম এল নওয়াজের ২ পুত্র হুসেইন ও হাসানের৷ দুজনেই ব্রিটেনের বাসিন্দা৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর শ্যালক ক্যাপ্টেন অবসরপ্রাপ্ত সফদারকেও দুর্নীতির অভিযোগে এক বছরের কারদণ্ড সজা শোনানো হয়েছে৷ গোট পরিবারের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের ট্রায়াল জেলে বসেই সম্মুখীন হবেন নওয়াজ৷ এছাড়া নওয়াজকে ৮০ লাখ এবং মরিয়মকে ২০ লাখ ব্রিটিশ পাউন্ড জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আদালত৷

শুক্রবার লাহোরে পা দেওয়ার পরই নওয়াজ ও মরিয়মকে গ্রেফতার করে NAB৷ নিয়ে যাওয়া হয় রাওলপিন্ডির আদিয়ালা জেলে৷ NAB বিরাট বাহিনী সুরক্ষার প্রাচীরে বাবা, মেয়েকে ঘিরে ছিল৷ ৬ জুলাই দুর্নীতি মামলায় তাঁরা অভিযুক্ত হন৷ স্ত্রী কুলসুম নওয়াজের অসুস্থতার কারণে লন্ডনে ছিলেন দুজনেই৷

২৫ জুলাই পাক নির্বাচনকে সামনে রখে দল পিএমএল-এনের হয়ে মেয়েক প্রার্থী পদ দিয়েছিলেন নওয়াজ৷ তার কয়েক মাস আগে পানামা পেপারে নাম ওঠার কারণে পাকিস্তানের তিনবারেরর প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভোট দাঁড়ানোর অধিকার কেড়ে নেয় পাক সুপ্রিম কোর্ট৷

দেশে ফেরার আগেই নওয়াজ-মরিয়মকে exit control list (ECL) তালিকায় রেখেছে পাকিস্তান৷ যেখানে, দেশে ফেরার পর আর দেশের বাইরে যেতে পারবেন না তাঁরা৷ তাই বিচার চলাকালীন জেল থেকে মুক্তি পেলেও দেশের বাইরে পা রাথতে পারবেন না তাঁরা৷

---